পুলিশকে নাজেহাল করলো একটি পিকআপ ভ্যান !

0
214

শাহিনুর ইসলাম প্রান্ত, লালমনিরহাট প্রতিনিধি: লালমনিরহাটে হাইওয়ে পুলিশের সিগন্যাল অমান্য করে পালিয়ে যাবার সময় হাতীবান্ধা ও কালীগঞ্জ থানা পুলিশকে ফাঁকি দিতে পারলে, দুই থানার পুলিশকে নাজেহাল করে আদিতমারী থানা পুলিশের হাতে ধরা খেলো একটি পিকআপ ভ্যান। অবৈধ্য পন্যের চালান রয়েছে এমন তথ্যের ভিত্তিতে ঐ ৩ থানা পুলিশের রাতভর যৌথ অভিযানে পিকআপ ভ্যানে উদ্ধার হয়েছে ২৮ বস্তা কাঁচামরিচ। সোমবার রাতে পুলিশ কাঁচা মরিচ বোঝাই একটি পিকআপ ভ্যান আটক করা করেছে।

আদিতমারী থানার অফিসার্স ইনচার্জ ওসি হরেশ্বর রায় বলেন, সোমবার রাতে নীলফামারী থেকে তিস্তা ব্যারাজ হয়ে লালমনিরহাটে আসার সময়, বড়খাতা হাইওয়ে পুলিশ একটি পণ্য বোঝাই পিকআপকে সিগন্যাল দেন। কিন্তু সেই সিগন্যাল অমান্য করে লালমনিরহাট বুড়িমারী মহাসড়ক হয়ে লালমনিরহাট অভিমুখে দ্রুত গতিতে পিকআপটি পালিয়ে যায়।

সিগন্যাল অমান্য করায় পুলিশের ধারণা হয় গাড়িটিতে অবৈধ্য পন্যের চালান রয়েছে। এমন সন্দেহে ঐ পিকআপ ভ্যানটিকে আটক করতে হাতীবান্ধা থানা পুলিশের সহায়তা নেন হাইওয়ে পুলিশ। হাতীবান্ধা থানা পুলিশ পিকআপটিকে আটক করতে ব্যর্থ হয়ে কালীগঞ্জ থানা পুলিশের সহায়তা কামনা করেন। পরে কালীগঞ্জ থানা পুলিশ তাদের থানার সামনেসহ সকল বাজারে স্থানীয়দের সহায়তায় একাধিক বেড়িকেট দিলে সকল প্রতিবন্ধকতা কাটিয়ে বেপড়োয়া ও ক্ষিপ্তগতিতে গাড়িটি পালিয়ে যায়। এরপরে কালীগঞ্জ থানা পুলিশ গাড়িটির পিছু নিয়ে আদিতমারী থানা পুলিশের সহায়তা চায়।

খবর পেয়ে আদিতমারী থানা পুলিশ থানার গেটে বেশ কিছু পণ্যবাহী ট্রাক আড়াআড়ি করে রেখে পথ রোধ করেন। অবশেষে পথ না পেয়ে আদিতমারী থানার পাশে একটি গর্তে পিকআপটি ফেলে পালিয়ে যান চালক ও হেলপার।

অভিযান শেষে কালীগঞ্জ ও আদিতমারী থানা পুলিশ যৌথ ভাবে পিকআপটি তল্লাশি চালিয়ে ২৮ বস্তা কাঁচা মরিচ উদ্ধার করে। পুলিশের ধারণ্য গাড়িটির বৈধ কাগজপত্র না থাকায় মামলার ভয়ে এমন কাজ করেছে চালক। এ ঘটনায় আদিতমারী থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী হয়েছে বলে জানান আদিতমারী থানার ওসি হরেশ্বর রায়।

লালমনিরহাট পুলিশ সুপার এসএম রশিদুল হক বলেন, সিগনাল অমান্য করে বেপড়োয়া গতিতে আসা গাড়ির চালক ও হেলপারকে খুঁজছে পুলিশ। তাদের পেলে পুরো রহস্য জানা যাবে।