বিদ্যুৎ বিলের অসঙ্গতি গ্রাহক কর্তৃপক্ষের সমন্বয়েই দূর করতে হবে: আজাদ

0
168

সিলেট প্রতিনিধি : বিদ্যুৎ বিলের সমস্যা এক মাসের মধ্যে সৃষ্টি হয়নি। এটি সৃষ্টির পেছনে যেমন বিদ্যুৎ বিভাগের কতিপয় লোক জড়িত আছেন তেমনি আমরা গ্রাহকরাও জড়িত। সাময়িক সময়ের জন্য লাভবান হতে গিয়ে আমরা স্থায়ী সমস্যা ডেকে এনেছি।

এই সমস্যা দূরিভূত করতে বিদ্যুৎ বিভাগের কয়েক মাস সময় লাগবে। আমরা আশা করছি বিদ্যুৎ বিভাগ গ্রাহকদে প্রতি আন্তরিক আছেন। গ্রাহকদের যেভাবে সুবিধা হয় সেভাবে তারা এর সমাধান করে দিবেন।’মিরাবাজার বিদ্যুৎ অফিসের আওতাধীন গ্রাহকদের বিলিং সমস্যা সমাধানের লক্ষ্যে উন্মুক্ত আলোচনা সভায় সভাপতির বক্তব্যে সিলেট সিটি কর্পোরেশনের ২০নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আজাদুর রহমান আজাদ এসব কথা বলেছেন। শনিবার সকালে নগরীর সৈয়দ হাতিম আলী উচ্চ বিদ্যালয়ের সভাকক্ষে আয়োজিত গ্রাহকদের সাথে বিদ্যুৎ বিভাগের মতবিনিময় সভা অনিুষ্টত হয়।

সৈয়দ হাতিম আলী উচ্চ বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক মো. এলাইছ মিয়ার পরিচালনায় বিদ্যুৎ বিক্রয় ও বিতরণ বিভাগ-২ এর নির্বাহী প্রকৌশলী পারভেজ আহমদ বলেন, আমরা গ্রাহদের প্রতি আন্তরিক আছি। আমরা চাই না গ্রাহকরা ক্ষতিগ্রস্থ হোক। রিডারদের ভুলের কারণে যে সমস্যা সৃষ্টি হয়েছে তা একমাসের মধ্যে সমাধান করে দেওয়া হবে। গ্রাহকদের আর এমন পরিস্থিতির সম্মূখীন হতে হবে না। গ্রাহকরা যাতে স্বাছন্দে বিল পরিশোধ করতে পারে সেভাবে আমরা বিলগুলোকে কিস্তিতে পরিশোধের ব্যবস্থা করে দিবো।

এ উন্মুক্ত আলোচনায় আরোও অংশ নেন নগরীর ২১নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর আব্দুর রাকিব তুহিন, টুলটিকর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলী হোসেন, টিলাগড় পঞ্চায়েত কমিটির সেক্রেটারী সমর উদ্দিন মানিক, টিলাগড় কেন্দ্রীয় মসজিদের মোতায়ালী অধ্যাপক সৈয়দ মকসুদ, বিদ্যুৎ বিভাগের উপ-পরিচালক প্রশাসন রুহুল আমীন, ইসমাইল মাহমুদ সুজন, শফি উলাহ, হিরক দে পাপলু, মুহিবুর রহমান, বিদ্যুৎ বিভাগের শ্রমিক প্রতিনিধি সামসুল বাসিত প্রমূখ।