জামালপুরে যমুনাতে ৭ হাজার মিটার কারেন্ট জাল আটক করে ধ্বংস

0
70

জামালপুর প্রতিনিধি : জামালপুরের ইসলামপুরে যমুনা নদীতে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে ৭ হাজার মিটার কারেন্ট জাল আটক করে পুড়িয়ে ধ্বংস করা হয়েছে। মঙ্গলবার দুপুরে উপজেলা প্রশাসনের কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে উপজেলা পরিষদ চত্বরে জালগুলি পুড়িয়ে ফেলাহয় ।

জানা গেছে, উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে সোমবার রাত তিনটাহতে ভোর ৬টা পর্যন্ত যমুনা নদীতে মা ইলিশ সংরক্ষণ অভিযান পরিচালিত হয়। ইসলামপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার এবিএম এহসানুল মামুনের নেতত্বে এ অভিযানে অংশ নেন উপজেলা সিনিয়র মৎস কর্মকর্তা সুলিমুল্লাহ, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মেহেদী হাসান টিটু, আরডিও মহসিন রেজা, ইসমলামপুর থানা পুলিশ সদস্যসহ স্থানীয় যুবদলের নেতা কর্মীবৃন্দ। যমুনা নদীর সাপধরী, শিশুয়া, মাইজবাড়ি, মুন্নিয়া, উলিয়া ও সারিয়াকান্দি সীমান্তবর্তী এলাকাসহ যমুনার বিভিন্নপয়েন্টে ভ্রাম্যমাণ অভিযান পরিচালনা করা হয়। এ সময় ৫০টি প্রায় ৭হাজার মিটার কারেন্ট জাল ও প্রায় আঁধামণ ইলিশ মাছ আটক করে ভ্রাম্যমাণ অভিযানের সদস্যরা। অভিযানের সময় খবর পেয়ে জেলেরা মাছধরার জালগুলি ফেলে পালিয়ে যায়।

এব্যাপারে ইসলামপুর উপজেলা সিনিয়র মৎস কর্মকর্তা সলিমুল্লাহ জানান,আটককৃত কারেন্ট জাল মঙ্গলবার দুপুরে পুড়িয়ে ফেলা হয়েছে এবং ইলিশ মাছগুলো স্থানীয় একটি এতিম খানায় দেওয়া হয়েছে।উল্লেখ্য যে, ১অক্টোবর থেকে ২২অক্টোবর ইলিশের প্রধান প্রজনন মৌসুম। এ সময় সারাদেশে ইলিশ আহরণ, পরিবহণ, মজুদ, বাজারজাত করণ ও বিক্রয় দন্ডনীয় অপরাধ।

এ আইন অমান্যকারীর শাস্তি কমপক্ষে এক বছর হতে সর্বোচ্চ দুই বছরের সশ্রমকারাদন্ড অথবা সর্বোচ্চ পাঁচহাজার টাকা জরিমানা অথবা উভয় দন্ড হতে পারে। কিন্তু এই আইন বা সরকারী নিশেধাজ্ঞার তোয়াক্কা না করে জামালপুরের যমুনা নদীর বিভিন্ন পয়েন্টে অবাধে মা ইলিশ ধরছে জেলেরা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here