জাবিতে শিক্ষার্থীর সাময়িক বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহারের দাবিতে মৌন মিছিল ও মানববন্ধন 

0
126
আরিফুল ইসলাম আরিফ, জাবি প্রতিনিধি: জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) বটতলায় (খাবারের জায়গা)  ভূগোল ও পরিবেশ বিজ্ঞান বিভাগের এক শিক্ষিকার  অবৈধভাবে গাড়ি পর্কিংয়ের প্রতিবাদের ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থীকে সাময়িক বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহারের জন্য মানববন্ধব ও মৌন মিছিল করেছে অাইন ও বিচার বিভাগের শিক্ষার্থীরা। 
 
মঙ্গলবার (৩০ জানুয়ারি) সকাল ১০ টা ৩০ মিনিটে মানববন্ধবটি বিশ্ববিদ্যালয়ের অমর একুশে পাদদেশে অনুষ্ঠিত হয়। মানববন্ধবটি শেষ হয়ে একটি মৌন মিছিল বিশ্ববিদ্যালয়েরর অমর একুশ,শহীদ মিনার এবং পুরাতন কলাভবন হয়ে রেজিস্টার ভবনে এসে শেষ হয়।
 
বহিষ্কার মৌন মিছিলে বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংবাদিকতা বিভাগসহ বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষার্থীরা এর সাথে একাত্মতা পোষন করে মানববন্ধব এবং মৌন মিছিলে অংশগ্রহণ করে।
 
প্রতিবাদী শিক্ষার্থীরা দুপুর ১২ টায় মাননীয় উপাচার্য ড. ফারজানা ইসলামকে একটি স্মারকলিপি দেয়। স্মারকলিপিতে বলা হয়- “এখন পর্যন্ত কোন তদন্ত কমিটি গঠন করা হয় নাই,বহিষ্কৃত শিক্ষার্থীকে কোন প্রকার অাত্মপক্ষ সমার্থনের সুযোগ দেওয়া হয় নি, প্রত্যক্ষদর্শীদের কাছ থেকে কোন ধরনের বিবৃতি বা সাক্ষ্য নেয়া হয় নি, একপাক্ষিক রায় দেয়া হয়েছে এবং ২ দিনের মধ্যে অত্যন্ত দ্রুততার সহিত ভিত্তিহীনভাবে দায়ী করা হয়েছে,দোষ প্রমাণ করার অাগেই তাকে দোষী সাব্যস্ত করা হয়েছে”।
স্মারকলিপি দেওয়ার সময় উপাচার্য ড. ফারজানা ইসলাম বলেন, ‘আরমানকে বহিষ্কার করা হয়নি। আরমানকে বহিষ্কারের সুপারিশ করেছে ডিসিপ্লিনারী বোর্ড। এটি সিন্ডিকেটে উঠলেই তা কার্যকর হবে না হবে তা নির্ধারিত হবে। অামরা বিশ্ববিদ্যালয় পরিবেশ শান্ত রাখার জন্য দুই শিক্ষার্থীকে বহিষ্কার করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি কেননা ভূগোল ও পরিবেশ বিভাগের শিক্ষকদের উদ্যোগে বেশ কিছু বিভাগ ক্লাস পরীক্ষা নেওয়া বর্জন করেন। আরমান পরীক্ষায় অংশ নিতে পারবে’।
#বাংলাটপনিউজ/আরিফ