চাঁপাইনবাবগঞ্জে এইচ.এস.সি পরীক্ষা কেন্দ্রে ভাংচুর

0
102

চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি ॥ চাঁপাইনবাবগঞ্জ সরকারী মহিলা কলেজ এইচ.এস.সি পরীক্ষা কেন্দ্রে প্রথমে কথা কাটাকাটি, তারপর ভাংচুরের ঘটনা ঘটেছে। পরীক্ষার খাতা নির্ধারিত সময়ের ৫ মিনিট আগে নিয়ে নেয়ার অভিযোগ এনে বৃহস্পতিবার দুপুর ১টায় পরীক্ষা শেষের পর নবাবগঞ্জ সরকারী কলেজের বানিজ্য বিভাগের কিছু এইচ.এস.সি পরীক্ষার্থী মহিলা কলেজ কেন্দ্রে পরীক্ষা দেবার পর এঘটনা ঘটায় বলে অভিযোগ করেছেন পরীক্ষা কেন্দ্র কর্তৃপক্ষ।

এসময় নিরাপত্তার দায়িত্বে ছিলেন একজন মাত্র পুলিশ সদস্য। তাই কেন্দ্রে ভাংচুরের ঘটনা ঘটলেও তাৎক্ষনিক কোন পদক্ষেপ নিতে পারেনি পুলিশ সদস্য। প্রায় ২০ মিনিট ধরে শিক্ষার্থীরা ভাংচুর চালানোর পর পর অতিরিক্ত পুলিশ আসে কেন্দ্রে। কেন্দ্র সচিব ও মহিলা কলেজ অধ্যক্ষ প্রফেসর ড. নজরুল ইসলাম জানান, পাশের নবাবগঞ্জ সরকারী কলেজের শিক্ষার্থীরা এই কেন্দ্রে এইচ.এস.সি পরীক্ষা দিচ্ছে।

বৃহস্পতিবার ফিনান্স, ব্যাংকিং ও বীমা ১ম পত্র পরীক্ষা চলাকালে ৩য় তলার ৩০৩নং কক্ষে কড়াকড়ি করেন দায়িত্বরত উদ্ভিদবিদ্যা প্রভাষক কামরুন্নাহার। তিনি দেখাদেখি করে লেখার অভিযোগে কয়েকজন শিক্ষার্থীর খাতা কয়েক মিনিট কেড়ে রাখেন। এরই জেরে পরীক্ষা শেষে ওই ঘরের শিক্ষার্থীরা ভাঙ্গচুর শুরু করে। তাঁরা ভবনের ফটক আটকে দেয়। আটকা পড়ে ছাত্রীসহ অন্যান্য পরীক্ষার্থীরা। ক্যাস্পাসের ভেতর ও বাইরে থেকে ঢিল ছোঁড়ে উত্তেজিত ওইসব শিক্ষার্থীরা।

কয়েকটি বেঞ্চ, জানালার কাঁচ, নোটিশ বোর্ড, হোয়াইট বোর্ড, চেয়ার, টুল, বাইসাইকেল ভাংচুর করে এবং অন্যান্য আসবাবপত্রও ক্ষতিগ্রস্থ হয়। এসময় অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে তাঁরা। পরীক্ষার্থীরা অভিযোগ করেন, পরীক্ষা শুরুর প্রথম ৩০ মিনিটের নৈর্ব্যক্তিক অংশে ৫ মিনিট আগে খাতা নিয়ে নেয়া হয়। এমন অভিযোগ অস্বীকার করেছেন কেন্দ্র কর্তৃপক্ষ। তাঁরা জানান, এমন হবার সম্ভাবনা নেই। অধ্যক্ষ আরও বলেন, ঘটনাটি জেলা প্রশাসক ও নবাবগঞ্জ সরকারী কলেজ অধ্যক্ষকে অবগত করা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, গত বছরও প্রায় একই ধরনের ঘটনা ঘটায় পাশের কলেজের পরীক্ষার্থীরা। বৃহস্পতিবার বড় অঘটন না হলেও ভবিষ্যতে অতিরিক্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও জানান তিনি। এঘটনায় চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মনজুর রহমান জানান, চাঁপাইনবাবগঞ্জ সরকারী মহিলা কলেজ এইচ.এস.সি পরীক্ষা কেন্দ্রে ভাংচুরের ঘটনাটি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। অভিযোগ অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here