সিনেমার কাহিনীকেও হার মানাল তাদের পরকীয়া!

0
145

নিজস্ব প্রতিবেদক: চট্টগ্রামের ফটিকছড়িতে শাশুড়িকে বোকা বানিয়ে বাজারে ফেলে স্বামীর নগদ টাকা স্বর্ণালংকার ও দুটি মোবাইল ফোন নিয়ে পুরনো প্রেমিক রাজমিস্ত্রির হাত ধরে পালিয়েছে এক প্রবাসীর স্ত্রী।

গত রবিবার উপজেলা সদরের বিবিরহাট বাজারে শাশুড়ির সঙ্গে কেনাকাটা করতে এসে শাশুড়িকে ফাঁকি দিয়ে প্রেমিকের হাত ধরে পালিয়ে যায়। এ ঘটনার পর পর ফটিকছড়ি থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন ওই প্রবাসীর মা।

প্রেমিক তৈয়ব একখুলিয়া গ্রামের ইব্রাহিম বলির বাড়ির মৃত নুরুল ইসলামের ছেলে। পেশায় একজন রাজমিস্ত্রি।

অভিযুক্ত গৃহবধূর নাম মায়া অাকতার চম্পা (২২)। চম্পা ধুরুং লালমাজি পাড়ার সৌদি প্রবাসী মহিন উদ্দিন সাহেদের স্ত্রী। অাড়াই বছর আগে সুন্দরপুর ইউনিয়নের একখুলিয়া গ্রামের ইলিয়াছের মেয়ে চম্পার সঙ্গে মহিন উদ্দিনের বিয়ে হয়।

স্বামী সাহেদ মুঠোফোনে সৌদি আরব থেকে বলেন, অামার ঘরে রক্ষিত ২৪ ভরি স্বর্ণালংকার, বিশেষ কাজে ঘরে রাখা নগদ দেড় লাখ টাকা কৌশলে ঘর থেকে নিয়ে পালিয়ে যায় চম্পা। তার প্রেমিক এক রাজমিস্ত্রি।

তিনি বলেন, আমার মায়ের সঙ্গে অনেকটা জোর করে বাজারে যায় চম্পা। পরে ভূঁইয়া ক্লথ স্টোরের সামনে থেকে কৌশলে সটকে পড়ে। এর কিছুক্ষণ পর তার ব্যবহৃত মোবাইল বন্ধ করে দেয়। পুরোদিন তাকে খুঁজে না পেয়ে সন্ধ্যায় তার পরিবার থেকে নিশ্চিত করেন তাদের নিজ গ্রামের তৈয়ব অালী নামক এক ছেলের সঙ্গে পালিয়ে গেছে। পরে আমার মা ঘরে রাখ স্বর্ণালংকার খুঁজে দেখেন সেগুলো নেই।

স্বামী সাহেদ বলেন, আমরা স্বামী-স্ত্রী সুখে সংসার করে অাসছি। কখনও কারও মধ্যে বিন্দু পরিমাণ মনোমালিন্য হয়নি। তার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী কোনো সন্তান নিইনি এখনও। অথচ তৈয়ব আলী নামে ওই ছেলেটির সঙ্গে বিয়ের পূর্ব থেকে প্রেমের সম্পর্ক ছিল তার।

#বাংলাটপনিউজ/আরিফ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here