দীর্ঘ লড়াইয়ের পর না ফেরার দেশে চলে গেলে রাজীব

0
150

দীর্ঘ লড়াইয়ে পর না ফেরার দেশে চলে গেলে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) লাইফ সাপোর্টে থাকা তিতুমীর কলেজের ছাত্র রাজীব ।

সোমবার দিবাগত রাত সাড়ে ১২টায় আইসিইউতে চিকিৎসাধীন থাকা অবস্থা তিনি মারা যান । মেজ খালা লিপি আকতার এ তথ্য জানান।

লিপি আকতার কান্নাজড়িত কণ্ঠে সংবাদ মাধ্যমকে বলেন, আমাদের রাজীব আর নেই। রাত সাড়ে ১২টার দিকে চিকিৎসকরা আমাদের এ খবর জানিয়েছেন। তিনি জানান, আজ (মঙ্গলবার) সকালে রাজীবের মরদেহ গ্রামের বাড়ি বাউফল নিয়ে যাওয়া হবে।

এদিকে রাজীবের মৃত্যুতে যাত্রী অধিকার আন্দোলন শোক জানিয়েছে। আজ সকাল ১০টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে অবস্থান কর্মসূচি পালন করবে তারা।

উল্লেখ্য, গত ৩ এপ্রিল দুপুরে রাজধানীর কাওরান বাজারের সার্ক ফোয়ারার কাছে বিআরটিসির একটি দ্বিতল বাসের পেছনের ফটকে দাঁড়িয়ে গন্তব্যের উদ্দেশে যাচ্ছিলেন সরকারি তিতুমীর কলেজের স্নাতক দ্বিতীয়বর্ষের ছাত্র রাজীব হোসেন। বাসটি হোটেল সোনারগাঁওয়ের বিপরীতে পান্থকুঞ্জ পার্কের সামনে পৌঁছালে হঠাৎ পেছন থেকে স্বজন পরিবহনের একটি বাস বিআরটিসির বাসটিকে গা ঘেঁষে অতিক্রম করে।

এ সময় দুই বাসের প্রবল চাপে গাড়ির পেছনে দাঁড়িয়ে থাকা রাজীবের ডান হাত কনুইয়ের ওপর থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। এ ঘটনায় সঙ্গে সঙ্গে মাটিতে লুটিয়ে পড়েন তিনি। এতে তার মাথায়ও প্রচণ্ড আঘাত লাগে। দুর্ঘটনার পর তাকে প্রথমে শমরিতা হাসপাতালে ও পরে ঢামেক হাসপাতালের আইসিইউতে ভর্তি করা হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here