মুম্বই ইন্ডিয়ান্সকে ৩ উইকেটে হারাল রয়্যালস

0
45

উত্তেজক ম্যাচে মুম্বই ইন্ডিয়ান্সকে ৩ উইকেটে বিধ্বস্ত করে জয়ের সরণিতে ফিরল রাজস্থান রয়্যালস৷ কার্যত হারা ম্যাচে শেষ ওভারে রয়্যালসদের জয় এনে দেন কৃষ্ণাপ্পা গৌতম৷ তার আগে রাজস্থান ইনিংসের ভিত গড়ে দেন সঞ্জু স্যামসন ও বেন স্টোকস৷ টসে জিতে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে মুম্বই ইন্ডিয়ান্স নির্ধারিত ২০ ওভারে ৭ উইকেটের বিনিময়ে ১৬৭ রান তোলে৷ দুরন্ত হাফসেঞ্চুরি করেন সূর্য্যকুমার যাদব ও ইশান কিষাণ৷

ইনিংসের শুরুটা মোটেও মনে রাখার মতো হয়নি মুম্বইয়ের৷ প্রথম ওভারেই আউট হয়ে সাজঘরের পথে হাঁটা লাগান ওপেনার এভিন লিউয়িস৷ খাতা খোলার আগেই তাঁকে ক্রিজ ছাড়তে বাধ্য করেন স্টুয়ার্ট বিনির জায়গায় দলে ঢোকা ধবল কুলকার্নি৷ ইশান কিষাণকে সঙ্গে নিয়ে প্রাথমিক বিপর্যয় রোধ করেন অপর ওপেনার সূর্য্যকুমার যাদব৷ দ্বিতীয় উইকেটের জুটিতে দু’জনে মিলে যোগ করেন ১২৯ রান৷ শেষমেশ ব্যক্তিগত হাফসেঞ্চুরির গণ্ডি ছাড়িয়ে কুলকার্নির বলেই আউট হয়ে বসেন ইশান৷ ক্রিজ ছাড়ার আগে ৪টি চার ও ৩টি ছক্কার সাহায্যে ৪২ বলে ৫৮ রান করেন ঝাড়খণ্ডের তরুণ উইকেটকিপার-ব্যাটসম্যান৷ সূর্য্যকুমার ৪৭ বলে ৭২ রানের আগ্রাসী ইনিংস খেলে জয়দেব উনাদকাটকে উইকেট দেন৷ তাঁর ইনিংসটি ৬টি চার ও ৩টি ছক্কায় সাজানো ছিল৷

চার নম্বরে ব্যাট করতে নেমে পোলার্ড ২০ বলে ২১ রান করে অপরাজিত থাকেন৷ দলের ইনিংসে কোনও রান যোগ করতে পারেননি রোহিত৷ ক্রিজে আসা মাত্রই রাহানের সরাসরি থ্রো’য়ে রানআউট হন তিনি৷ ক্রুনাল পান্ডিয়া (৭), হার্দিক পান্ডিয়া (৪) ও ম্যাকক্লেনাঘানকে (০) একই ওভারে আউট করেন আইপিএলে আত্মপ্রকাশকারী জোফ্রা আর্চার৷ অভিষেক ম্যাচে ৪ ওভারে ২২ রানের বিনিময়ে দলের হয়ে সর্বাধিক ৩টি উইকেট নেন তিনি৷ এছাড়া ধবল কুলকার্নি ৩২ রানে ২টি ও জয়দেব উনাদকাট ৩১ রানের বিনিময়ে ১টি উইকেট নেন৷

জবাবে ব্যাট করতে নেমে রাজস্থান ৩৮ রানের মধ্যে দুই ওপেনার রাহুল ত্রিপাঠী (৯) ও অজিঙ্কা রাহানের (১৪) উইকেট হারিয়ে বসে৷ বেন স্টোকসের সঙ্গে জুটি বেঁধে সঞ্জু স্যামসন রাজস্থানকে বিপর্যয় থেকে উদ্ধার করেন৷ তৃতীয় উইকেটের জুটিতে দু’জনে মিলে যোগ করেন ৭২ রান৷ ব্যক্তিগত ৪০ রানের মাথায় স্টোকস ও ৫২ রান করে স্যমসন আউট হওয়ার পরেই চাপে পড়ে যায় রয়্যালস৷

বাটলার (৬) ও ক্লাসেন (০) বেশিক্ষণ স্থায়ী হতে পারেননি ক্রিজে৷ ১৭ বলে জয়ের জন্য ৪৩ রান দরকার, এমন অবস্থায় ক্রিজে এসে ঝড় তোলেন গৌতম৷ তাঁকে সাধ্য মতো সঙ্গত করেন জোফ্রা (৮)৷ ১৮তম ওভারে ওঠে ১৫ রান৷ ১৯ তম ওভারে ১৮৷ অর্থাৎ শেষ ওভারে জয়ের জন্য রয়্যালসের প্রয়োজন ছিল ১০ রান৷ প্রথম বলে অর্চারের উইকেট হারালেও একটি চার ও একটি ছক্কায় দু’বল বাকি থাকতেই রাজস্থানের জয় নিশ্চিত করেন গৌতম৷ তিনি অপরাজিত থেকে যান ১১ বলে ৩৩ রান করে৷ ১৯.৪ ওভারে ৭ উইকেটের বিনিময়ে জয়ের জন্য প্রয়োজনীয় ১৬৮ রান তুলে নেয় রাজস্থান৷ ম্যাচের সেরা খেলোয়াড় নির্বাচিত হন অভিষেককারী জোফ্রা

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here