ইউপিডিএফ-গণতান্ত্রিক সভাপতিসহ নিহত ৫, আহত ৯

0
77

নানিয়ারচর উপজেলা চেয়ারম্যান শক্তিমান চাকমাকে হত্যার ২৪ ঘন্টার মধ্যেই তার দাহক্রিয়ায় যোগ দিতে যাওয়ার পথে সাধারণ মানুষের ওপরে বেপরোয়া গুলিবর্ষণে ইউপিডিএফ-গণতান্ত্রিক এর শীর্ষ নেতা, আহ্বায়ক তপন জ্যোতি চাকমা বর্মাসহ কমপক্ষে ৫ জন নিহত এবং আরো ৯ জন আহত হয়েছে।

নিহত বাকী চারজন হলেন, ড্রাইভার সজীব চাকমা, সেতুলাল চাকমা, রবিন চাকমা ও টনক চাকমা।

রাঙামাটির পুলিশ সুপার আলমগীর কবির ও নানিয়ারচর-মহালছড়ি সীমান্তে একটি হামলায় পাঁচজন নিহত হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তপনজ্যোতি চাকমা বর্মার মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন দলটির মিডিয়া উইংয়ের দায়িত্বে থাকা লিটন চাকমা।

তিনি এই হত্যাকান্ডের জন্য ইউপিডিএফকে দায়ী করে বলেছেন, শক্তিমান চাকমাকে হত্যা করার পর তপনজ্যোতি চাকমা বর্মাকে হত্যার মধ্য দিয়ে পার্বত্য চট্টগ্রামে একক সন্ত্রাসী সংগঠন হিসেবে নিজেদের নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠার জন্য তারা একের পর এক খুনের ঘটনা ঘটিয়ে চলেছে।

আহত ও নিহতরা সবাই শক্তিমান চাকমার দাহক্রিয়ায় যোগ দিতে সেখানে যাচ্ছিলেন বলে জানিয়েছে হামলায় আহতরা।

আহতদের মধ্যে আটজনকে খাগড়াছড়ি সদর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। তাদের মধ্যে অন্তত তিনজনকে উন্নত চিকিৎসার জন্য চট্টগ্রামে পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে বলে জানিয়েছেন পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি-এমএনলারমার শীর্ষ নেতা সুদর্শন চাকমা।

আহতরা জানিয়েছেন, শক্তিমান চাকমার দাহক্রিয়ায় যোগ দিতে যাওয়ার পথে কেরেঙ্গাছড়ি এলাকায় গাড়িবহরে গুলিবর্ষণ শুরু করে দুর্র্বৃত্তরা। এ সময় বেপরোয়া গুলি বর্ষণে ঘটনাস্থলেই নিহত হয় ৩ জন। আহত হয় অনেকেই।

নিহতদের মধ্যে রয়েছেন সম্প্রতি ইউপিডিএফ থেকে বেরিয়ে গিয়ে নতুন দল হিসেবে আত্মপ্রকাশ করা ইউপিডিএফ-গণতান্ত্রিক এর আহ্বায়ক তপনজ্যোতি চাকমা বর্মাও।

#বাংলাটপনিউজ/আরিফ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here