গাজীপুর সিটি নির্বাচন ও একজন সুরুজ মিয়া !

0
273

সাভার-শিমুলিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এবিএম আজহারুল ইসলাম সুরুজের করা একটি রিট আবেদন পরিপ্রেক্ষিতে গাজীপুর সিটি নির্বাচন স্থগিত করেছেন হাইকোর্ট। ফলে নানা মহল থেকে প্রশ্ন উঠেছে কে এই সুরুজ ? এবিএম আজাহারুল ইসলাম সুরুজ ২০১৬ সালে ‘নৌকা’ প্রতীক নিয়ে সাভার-শিমুলিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নির্বাচন হন। এর আগে ২০১১ সালের নির্বাচনে তিনি ‘গরুর গাড়ি’ মার্কা নিয়ে নির্বাচন করে বিজয়ী হয় ছিলেন। ‍তিনি সাভার উপজেলা আওয়ামী লীগের শ্রম ও জনশক্তি বিষয়ক সম্পাদক ।

উল্লেখ্য রবিবার, সীমানা জটিলতা নিয়ে তার করা এক রিট আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে গাজীপুর সিটি নির্বাচন স্থগিত করেন বিচারপতি নাঈমা হায়দার ও বিচারপতি জাফর আহমেদের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ ।

সাভার উপজেলার ছয়টি মৌজা অন্তর্ভুক্ত করে ২০১৩ সালে ১৬ জানুয়ারি গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনে গেজেট প্রকাশ এর প্রেক্ষিতে গত ৪ মার্চ গাজীপুর সিটি করপোরেশনটির সীমানা গেজেট জারি হয়। যেখানে শিমুলিয়া ইউনিয়নের দক্ষিণ বড়বাড়ী, ডোমনা, শিবরামপুর, পশ্চিম পানিশাইল, দক্ষিণ পানিশাইল ও ডোমনাগকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়।

রুলে গাজীপুর সিটি করপোরেশনে সাভারের শিমুলিয়া ইউনিয়নের ছয়টি মৌজাকে অন্তর্ভুক্ত করা বেআইনি হবে না- তা চার সপ্তাহের মধ্যে জানতে চেয়েছেন হাইকোর্ট।

এর আগে ১০ এপ্রিল এ ধরনের একটি রিট উত্থাপিত হয়নি মর্মে খারিজ (নট প্রেস রিজেক্টেড) করে দিয়েছিলেন হাইকোর্টের অপর একটি বেঞ্চ। পরে ওই ছয় মৌজা অন্তর্ভুক্তির বৈধতা নিয়ে রুলজারির আর্জি জানিয়ে নতুন করে রিট করেন সুরুজ। এ রুল নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত সিটি নির্বাচন স্থগিতের আবেদন করা হয়। রিট আবেদনের পক্ষে শুনানিতে ছিলেন আইনজীবী বিএম ইলিয়াস কচি। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি মো. মোখলেছুর রহমান।

উল্লেখ্য, আগামী ১৫ মে গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র, সাধারণ ও সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়া কথা ছিল। ৫৭টি সাধারণ ও ১৯টি সংরক্ষিত ওয়ার্ড নিয়ে গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন গঠিত। এখানে ভোটার ভোটার সংখ্যা ১১ লাখ ৬৪ হাজার ৪২৫ জন।