চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভার প্রস্তাবিত বাজেট ১০৮ কোটি

0
55

চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি ॥ চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভার ২০১৮-১৯ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটের উপর উন্মুক্ত আলোচনা হয়েছে। প্রস্তাবিত বাজেটে আয়-ব্যয় ধরা হয়েছে ১০৮ কোটি ৬৫ লক্ষ ৩০ হাজার ৫’শ ৯৩ টাকা। সোমবার বিকেলে চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভা মিলনায়তনে এই উন্মুক্ত আলোচনা হয়। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন সদর আসনের সংসদ সদস্য আব্দুল ওদুদ। আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভার মেয়র মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম।

উপস্থিত ছিলেন সদর চাঁপাইনবাবগঞ্জ চেম্বারের সিনিয়র সহ-সভাপতি আলহাজ্ব আব্দুল হান্নান হান্নু, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোখলেশুর রহমান, পৌরসভার নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃ সাদিকুল ইসলাম, প্যানেল মেয়র-১ মোঃ সাইদুর রহমান, প্যানেল মেয়র-৩ মোসলেম বেম মুসি, বিশিষ্ট সমাজ সেবক মনিম উদ দৌলা চৌধুরী ও শফিকুল আলম ভোতা, আব্দুল হান্নান মাস্টার, জেলা পরিষদের সংরক্ষিত আসনের সদস্য শান্তনা হক শান্তা, নবাবগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হাসিনুর রহমান, জেলা ট্রাক ও মটর শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি মোঃ সাইদুর রহমান, পৌরসভার কাউন্সিলরবৃন্দ, বিভিন্নস্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারী ও স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ। সভায় প্রস্তাবিত বাজেট উপস্থাপন করেন পৌরসভার সচিব মামুনুর রশিদ।

২০১৮-১৯ অর্থ বছরের বাজেটে প্রস্তাবিত আয় ধরা হয়েছে ১০৮ কোটি ৬৫ লক্ষ ৩০ হাজার ৫’শ ৯৩ টাকা এবং প্রস্তাবিত ব্যয় ধরা হয়েছে ১০৮ কোটি ৬৫ লক্ষ ৩০ হাজার ৫’শ ৯৩ টাকা টাকা। এর মধ্যে ট্যাক্স থেকে আয় ৫ কোটি ৩৬ লাখ ১৭ ৭’শ ৭৫ টাকা, রেইট ৪ কোটি ১৯ লাখ ৮২ হাজার ৮১৮ টাকা, ফিস থেকে ৪৭ লাখ, দারিদ্র নিরসন কর্মপরিকল্পনা (পিআরএপি) থেকে ৩৯ লাখ ২৫ হাজার, অন্যান্য খাত থেকে ১২ কোটি ৫২ লাখ ১৫ হাজার টাকা। সরকারী অনুদান ৯ লাখ ৬৫ হাজার, পানি সরবরাহ খাত থেকে আয় ২ কোটি ৮৬ লাখ ২৫ হাজার, উন্নয়ন সহায়তা তহবিল ২১ কোটি, ইউজিপ-৩ থেকে ৬১ কোটি টাকা, নিজস্ব খাত ৫৫ লাখ, পানি সরবরাহ খাত থেকে ৮ লাখ, উন্নয়ন সহায়তা তহবিল ২ লাখ, ইউজিপ-৩ ১০ লাখ।

বাজেটে সম্ভাব্য ব্যয় ধরা হয়েছে সংস্থাপন ব্যয় ১২ কোটি ৫৬ লক্ষ ৭৫ হাজার, শিক্ষা খাতে ৫ লাখ, স্বাস্থ্য ব্যয় ৬ লাখ ৭০ হাজার, বর্জ্য সংগ্রহ অপসারণ এবং ব্যবস্থাপনা খাতে ব্যয় ১ কোটি, ড্রেন ও নালা পরিস্কার করণ খাতে ৪ লাখ, কর আদায় খরচ ২ লাখ, বৃক্ষ রোপন ও রক্ষণাবেক্ষন খাতে ব্যয় ১ লাখ, দারিদ্র নিরসন কর্মপরিকল্পনা (পিআরএপি) খাতে ৬ কোটি ৫ লক্ষ, অন্যান্য খাতে ব্যয় ৪ কোটি ৪৬ লাখ, পানি সরবরাহ খাতে ব্যয় ২ কোটি ৬৮ লাখ ৫ হাজার, নিজস্ব খাত হতে রাজস্ব উদ্বৃত্ত উন্নয়ন হিসাব ব্যয় ৪ কোটি ৩০ লাখ ৮০ হাজার ৫৯৩ টাকা, উন্নয়ন হিসাব এডিপি খাতে ব্যয় ২১ কোটি, নগর পরিচালন ও অবকাঠামো উন্নতিকরণ প্রকল্পে ব্যয় ৬১ কোটি, নিজস্ব খাত থেকে ব্যয় ৬ লাখ, পানি সরবরাহ খাতে ব্যয় ১ লাখ, ইউজিপ-৩ ১ লাখ টাকা। শেষে ইফতার মাহফিলে যোগদেন অতিথিগণসহ উপস্থিত স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here