কুমিল্লার ২ মামলায় খালেদার জামিন চেম্বারে স্থগিত

0
113

কুমিল্লায় নাশকতার দুই মামলায় খালেদা জিয়াকে হাই কোর্টের দেওয়া জামিন স্থগিত করেছে আপিল বিভাগের চেম্বার আদালত। রাষ্ট্রপক্ষের আবেদনে সাড়া দিয়ে মঙ্গলবার চেম্বার বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী বিএনপির চেয়ার- পারসনের জামিনে স্থগিতাদেশ দিয়ে মামলাটি পূর্ণাঙ্গ বেঞ্চে শুনানির জন্য পাঠান।

দুই মামলায় জামিন স্থগিতের পৃথক দুটি আবেদনের শুনানি আপিল বিভাগের পূর্ণাঙ্গ বেঞ্চে বৃহস্পতিবার হবে বলে অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম জানিয়েছেন। চেম্বার আদালতে জামিন স্থগিতের আবেদনে রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করেন অ্যাটর্নি জেনারেল নিজে; আর খালেদা জিয়ার পক্ষে শুনানি করেন খন্দকার মাহবুব হোসেন।

সোমবার বিচারপতি একেএম আসাদুজ্জামান ও বিচারপতি জেবিএম হাসানের হাই কোর্ট বেঞ্চ কুমিল্লার নাশকতার দুই মামলায় খালেদা জিয়াকে ছয় মাসের জামিন দেয়। তবে নড়াইলের মানহানির মামলায় খালেদা জিয়ার জামিন আবেদন উত্থাপিত হয়নি মর্মে খারিজ হয়েছে।

চেম্বার আদালতের আদেশের পর খালেদা জিয়ার আইনজীবী খন্দকার মাহবুব হোসেন সাংবাদিকদের বলেন, বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি সরকারের সদিচ্ছার ওপর নির্ভর করছে। সরকার চায় বেগম খালেদা জিয়াকে জেলে রেখে তারা নির্বিঘ্নে বাংলাদেশে বাকশাল কায়েম করবে। একদলীয় শাসন ব্যবস্থা কায়েম করবে। সেই স্বপ্ন কোনো দিনও সার্থক হবে না সেটা আমরা বিশ্বাস করি।

এ বক্তব্যে আপত্তি জানিয়ে অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম সাংবাদিকদের বলেন, সরকারের সদিচ্ছা না হলে খালেদা জিয়া মুক্তি পাবেন না, এ ধরনের বক্তব্য আদালত অবমাননাকর। কারণ এই দেশে আদালত আছে। আদালত জামিন দিচ্ছে, আবার জামিন স্থগিতও করছে। মামলায় তাদের প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে হবে এবং এই যে সমস্ত তথ্য-উপাত্ত আছে তার উপর নির্ভর করেই তাদের বক্তব্য দিতে হবে, যুক্তিতর্ক করতে হবে। মুখরোচক বক্তব্য দিয়ে তাদের কোনো লাভ হবে না।’