অস্ত্র-হেরোইন দিয়ে অন্যকে ফাঁসাতে গিয়ে নিজেই ফাঁসলো চাঁপাইনবাবগঞ্জের খালেক!

0
50

চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি ॥ কথায় বলে “পরের জন্য খাদ কাটলে, সেই খাদে পড়ে নিজেই”। এরই প্রমান হলো অস্ত্র দিয়ে অন্যকে ফাঁসাতে গিয়ে নিজেই ফাঁসলো চাঁপাইনবাবগঞ্জের যুবক আব্দুল খালেক। আব্দুল খালেক চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলার মহারাজপুর ইউনিয়নের জোড়া বকুলতলা গ্রামের ভুটু মড়লের ছেলে। খালেক ফাঁসাতে চাচ্ছিল চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলার শাহজাহানপুর ইউনিয়ন পরিষদের ৮ নং ওয়ার্ড সদস্য ও হাকিমপুর গ্রামের আবুল কাশেমকে।

সোমবার দিবাগত রাত ৩টার দিকে (মঙ্গলবার রাত) এঘটনা ঘটে। আর এই ষড়যন্ত্র ধরা পড়ে পুলিশের চোখে। তাৎক্ষনিক অস্ত্র গিয়ে সন্দেহ হলে আব্দুল খালেককে আটক করে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ। মঙ্গলবার দুপুরে পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে এক প্রেসব্রিফিং এ বিষয়টি নিশ্চিত করেন পুলিশ সুপার টি.এম মোজাহিদুল ইসলাম বিপিএম।

তিনি সংবাদিকদের জানান, চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলার শাহজাহানপুর ইউনিয়ন পরিষদের ৮ নং ওয়ার্ড সদস্য আবুল কাশেমের বাড়িতে অস্ত্র ও হেরোইন রয়েছে, এমন সংবাদের ভিত্তিতে জেলা গোয়েন্দা পুলিশের একটি দল সোমবার দিবাগত রাত ৩টার দিকে (মঙ্গলবার রাত) অভিযান চালায়। আর এর সংবাদদাতা সদর উপজেলার মহারাজপুর জোড়া বকুলতলা গ্রামের ভুটু মড়লের ছেলে খালেক।

এই অস্ত্র ও হেরোইন এর সংবাদদাতা আব্দুল খালেক নিজেই একটি খড়ির মাচায় অস্ত্র ও হেরোইন এখানেই আছে দেখিয়ে বলে নিশ্চিত করে। খালেকের দেখানো স্থান থেকেই ২টি পিস্তল ও ২ প্যাকেটে ২’শ গ্রাম হেরোইন উদ্ধার করা হয়। একটি নির্দিষ্টস্থানে অস্ত্র ও হেরোইন থাকার কথা খালেক কি করে জানলো? এমন প্রশ্ন উঠে পুলিশের মনে।

জবাব খুঁজতে গিয়ে গোয়েন্দাদের সন্দেহ হলে আব্দুল খালেকসহ তার সাথে থাকা ৪ জনকে আটক করা হয়। এসময় সেলিম নামে অন্য একজন পালিয়ে যায়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জনপ্রতিনিধি আবুল কাশেমকে মোটা অংকের অর্থের বিনিময়ে ফাঁসানোর বিষয়টি প্রমাণ হওয়ায় আব্দুল খালেককে আটক করা হয় এবং অন্যদের বিরুদ্ধে প্রমাণ না পাওয়ায় তাদেরকে ছেড়ে দেওয়া হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here