হরিনাকুন্ডুর রায়পাড়া ভাতুড়িয়া গ্রামের তিন সন্তানের জননী বিবাহীত পুরুষের সাথে উধাও !

0
236

জাহিদুর রহমান তারেক, ঝিনাইদহঃ ঝিনাইদহের হরিনাকুন্ডুর রায়পাড়া ভাতুড়িয়া গ্রাম থেকে তিন সন্তানের জননী বিবাহীত পুরুষের হাত ধরে উধাও হয়েছেন মর্মে গ্রাম জুড়ে তোলপাড় চলছে। স্বামীকে গভীর ঘুমে অচেতন করে দুই ছেলে এক মেয়ের জননী আকলিমা বেগম (৩৩) পাশের গ্রাম কোল-ভাতুড়িয়া গ্রামের বিবাহীত পুরুষ মিলনের হাত ধরে পরোকীয়ায় মজে উধাও হয়েছেন।

জানা গেছে, হরিনাকুন্ডুর রায়পাড়া ভাতুড়িয়া গ্রামের কাঁচা তরকারী ব্যাবসায়ী রবিউল ইসলাম দীর্ঘদিন যাবত ঢাকায় কাঁচা তরকারী ব্যবসা করে আসছেন। রবিউল ব্যাবসার খাতিরে প্রায়ই বাড়ির বাইরে থাকার সুযোগ ধরে রবিউলের স্ত্রী পাশের গ্রাম কোল-ভাতুড়িয়ার বিবাহীত পুরুষ মিলনের সাথে পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়ে। আকলিমার মতো মিলনেরও স্ত্রী ও সন্তান রয়েছে। ঘটনার দিন ১০ই জুন শনিবার রাতে খাওয়া দাওয়া শেষে আকলিমা স্বামী রবিউলকে কৌশলে গভীর ঘুমে আচ্ছন্ন করে রাত আনুমানিক ১২টার পরে মিলনের কথানুযায়ী ৭০ হাজার টাকা ও স্বর্ণালঙ্কার সহ পরকীয়ার নাগর মিলনের হাত ধরে পালিয়ে যায় বলে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক গ্রামবাসী সুত্রে জানা গেছে।

এদিকে, রবিউল ৩টার দিকে ঘুম থেকে জেগে দেখে বিছানায় তার স্ত্রী আকলিমা নেই। এদিক ওদিক খোঁজা খুঁজির এক পর্যায়ে রবিউলের বড় ছেলে পিতাকে জানায়, তার মা আকলিমা মিলনের সাথে উধাও হওয়ার সময় সে দেখে ফেললে আকলিমা ছেলেকে বলে ‘তুই যদি কাউকে জানাস তাহলে মিলনকে দিয়ে তোকে চিরতরে খতম করে ফেলবো’। একথা শুনে বড় ছেলে চুপ করে ঘুমিয়ে থাকে। সেসময় সুযোগ মতো আলিমা মিলনের হাত ধওে পালিয়ে যায়।

এঘটনায় ঐ এলাকার ইদ্রিস মেম্বর ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, আমি গ্রামের লোক জনের কাছে ব্যাপারটা শুনেছি এবং এখনো তাদের কোনো প্রকার খোঁজ মেলেনি পর্যন্ত জানি। এব্যাপারে হরিণাকুন্ডু থানার ওসি কাজী আইয়ূবুর রহমান জানান, আকলিমা ও মিলনের পরোকীয়ার উধাও ঘটনায় থানায় এখনও পর্যন্ত কেউ কোনো অভিযোগ করেনি, অভিযোগ করলে তদন্ত সাপেক্ষে যথা যথ ব্যাবস্থা নেওয়া হবে।