নারায়নগঞ্জ-১ (রূপগঞ্জ) আসনে সম্ভাব্য এমপি প্রার্থী নারীনেত্রী ফাতেমা ইসলাম!

0
575

স্টাফ রিপোর্টার: আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নারায়নগঞ্জ-১ (রূপগঞ্জ) আসনে সম্ভাব্য এমপি প্রার্থী হিসেবে বিশিষ্ট সমাজ সেবিকা, শিক্ষানুরাগী, লক্ষ লক্ষ জনতার নয়নের মনি, দুঃখী মানুষের আশ্রয় স্থল ও সাহসী নারীনেত্রী ফাতেমা ইসলাম ব্যাপক আলোচনায়।

স্থানীয় সূত্রমতে, নারায়নগঞ্জ-১ (রূপগঞ্জ) আসনে এবার পরিবর্তনের হাওয়া বইছে। আর জনমুখী নানা ইতিবাচক কর্মকান্ড আর সুখে-দুঃখে সাধারণ মানুষের পাশে থাকা বিশিষ্ট সমাজ সেবিকা, শিক্ষানুরাগী, লক্ষ লক্ষ জনতার নয়নের মনি, দুঃখি মানুষের আশ্রয় স্থল ও সাহসী নারীনেত্রী নারীনেত্রী ফাতেমা ইসলাম সম্ভাব্য এমপি প্রার্থী হিসেবে বিভিন্ন ভাবে এগিয়ে আছেন। আগামী নির্বাচনে এই আসনে যারা এমপি হতে চান তাদের মধ্যে তিনি অন্যতম।

তাকে নিয়ে এই আসনের সাধারণ জনগণ স্বপ্ন দেখতে শুরু করেছেন। তিনি বিভিন্ন ইতিবাচক কর্মকান্ড আর বিচক্ষণ নেতৃত্বগুণে ইতিমধ্যে নারায়নগঞ্জ-১ তথা রূপগঞ্জ বাসীর আস্থা ও ভালোবাসা অর্জন করতে সক্ষম হয়েছেন। তিনি এলাকায় নানান কর্মকান্ডে আত্মনিয়োগ করছেন। তাকে সামাজিক ও সেবামূলক কর্মকান্ডে সক্রিয়ভাবে যোগ দিতে দেখা গেছে। এছাড়াও এলাকার সাধারণ মানুষের সঙ্গে বিভিন্ন ভাবে নিয়মিত যোগাযোগ রাখছেন। অন্যদিকে এই নির্বাচনী এলাকার জনগণও তাকে সাদরে গ্রহণ করছেন বলেও জানিয়েছে একটি সূত্র।

এ ব্যাপারে নারায়নগঞ্জ-১ (রূপগঞ্জ) আসনের অনেকেই বলেন, সাহসী নারীনেত্রী ফাতেমা ইসলাম এলাকার জনসাধারণের জন্য যেভাবে সাহায্যের জন্য এগিয়ে আসেন, তা সত্যি অভূতপূর্ব। এলাকার মানুষের উপকার করা তার বড় নেশা। এছাড়া সে এলাকার সাধারণ মানুষের পাশে থেকে হাসি মুখে অনেকেরই মন জয় করে নিয়েছেন। তাই আমরা তাকেই এমপি হিসেবে পেতে চাই। তিনিই এখন ব্যাপক আলোচনায়।

তারা আরও বলেন, তিনি এলাকায় নিয়মিত পথসভা, মতবিনিময় ও গণসংযোগ এবং সামাজিক অনুষ্ঠানেও যোগ দিচ্ছেন। আর তিনিই দীর্ঘদিন ধরে এলাকায় সাধারণ মানুষের পাশে রয়েছেন। বিভিন্ন দূর্ঘটনায় কবলিতদের নিয়মিত খোঁজখবর রাখেন। তাই তিনিই এমপি হওয়ার দাবিদার। তিনি জনতার নিবেদিত প্রাণ ও সাহসী নারীনেত্রী। তিনি মানব সেবায় শতভাগ ত্যাগ শিকার করে অংশ গ্রহণ করেন। তার ত্যাগ ও ব্যক্তিগত ক্লিন ইমেজের কারণে তিনি এমপি নির্বাচিত হবেন।

এ ব্যাপারে নারীনেত্রী ফাতেমা ইসলাম বলেন, দীর্ঘদিন যাবৎ নারায়নগঞ্জ-১ (রূপগঞ্জ) এলাকার মানুষের পাশে থেকে তাদের আশা-আকাঙ্খার কথা জেনেছি। স্বাধ্যমত তাদের সেবা করেছি। তাই আমি এমপি পদে প্রার্থী হতে পারলে বিজয়ের ব্যাপারে শতভাগ আশাবাদী, ইনশাআল্লাহ। আর আমি প্রার্থী হলে মানুষের দোয়া ও আর্শিবাদে সফল হতে পারব, সেই বিশ্বাস নিয়েই কাজ করছি। তবে জনগণের নির্দেশ পেলেই আমি নির্বাচনে অংশ নিতে আগ্রহী।

আমি মানুষের সেবা ও এলাকার উন্নয়ন করার জন্য নিরলস ভাবে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। কারণ আমি সারা জীবন মানুষের কল্যাণে ও এলাকার উন্নয়নে কাজ করতে চাই। এ জন্য সকলের দোয়া ও আর্শিবাদ এবং সার্বিক সহযোগিতা কামনা করছি, আমিন।