ভারত একেবারেই নিরাপদ দেশ নয়- সুইজারল্যান্ডের আব্রে অ্যালিঞ্চ

0
36

ভারত একেবারেই নিরাপদ দেশ নয়। তাই সেখানে আয়োজিত প্রতিযোগিতায় অংশ নেওয়ার প্রয়োজন নেই। আর সেই কারণেই বিশ্ব জুনিয়র স্কোয়াশ চ্যাম্পিয়নশিপ থেকে নাম তুলে নিলেন সুইজারল্যান্ডের আব্রে অ্যালিঞ্চ।

গত ১৭ জুলাই চেন্নাইয়ে শুরু হয়েছে বিশ্ব জুনিয়র স্কোয়াশ চ্যাম্পিয়নশিপ। ২৮ টি দেশের প্রতিযোগীরা অংশ নিয়েছেন প্রতিযোগিতায়। তবে শুধুমাত্র নিরাপত্তার শঙ্কাতেই নাকি চ্যাম্পিয়নশিপ থেকে নাম তুলে নিয়েছেন সুইজারল্যান্ডের নামী এই স্কোয়াশ খেলোয়াড়।

একটি ইংরাজি সংবাদ মাধ্যমের খবর অনুযায়ী, আব্রের অভিভাবকরাই তাঁকে ভারতে আসার অনুমতি দেননি। এ দেশে বাড়তে থাকা অপরাধ, ধর্ষণ, খুনের খবর তাঁর বাবা-মাকে চিন্তায় ফেলে দিয়েছে। সেই কারণেই ভারতে আয়োজিত প্রতিযোগিতায় অংশ নেওয়া হল না তাঁর।

ছাত্রী চ্যাম্পিয়নশিপে যোগ দিতে না পারার আক্ষেপ শোনা গেল সুইস কোচ পস্কল ভুরিনের গলাতেও। বলেন, “আব্রে আমাদের দেশের প্রথম সারির মহিলা খেলোয়াড়দের অন্যতম। কিন্তু ওর অভিভাবকদের অসম্মতির কারণে ভারতে যাওয়া হল না। বিভিন্ন ওয়েব নিউজে চোখ রেখে তাঁরা বেশ চিন্তিত। সে দেশে মহিলারা কীভাবে ধর্ষণের শিকার হন, সে খবর পড়েই চিন্তায় পড়েন তাঁরা। তাই মেয়েকে চেন্নাই পাঠাননি।”

সংবাদমাধ্যম সূত্রে এও জানা গিয়েছে, এবারের প্রতিযোগিতায় ইরান, অস্ট্রেলিয়া, আমেরিকা থেকে মহিলা প্রতিযোগীরা অংশ নিয়েছেন। সে সব দেশও নাকি চেন্নাইয়ে মহিলাদের নিরাপত্তা নিয়ে চিন্তিত। তাঁদেরও নাকি বলা হয়েছে, সুরক্ষার জন্য পোশাকে বিশেষ চাকচিক্য না রাখতে। আসলে সম্প্রতি চেন্নাইয়ে ১১ বছরের নাবালিকাকে ধর্ষণের ঘটনায় ১৭ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়। তারপরই শঙ্কিত বিদেশের অভিভাবকরা।

তবে সুইস অভিভাবকের এমন আশঙ্কা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে দেশবাসী। কারণ এর আগেও ভারতের মাটিতে নানা আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতার আসর বসেছে। মহিলাদের ক্রিকেট সিরিজ থেকে ব্যাডমিনটন চ্যাম্পিয়নশিপ; সব নিরাপদেই আয়োজিত হয়েছে।

বিশ্ব স্কোয়াশ ফেডারেশনের প্রধান অ্যান্ড্রু শেলি বলেন, “চলতি চ্যাম্পিয়নশিপে ২৮ টি দেশের ২৫০ জন অংশ নিয়েছে। যেখানে সুইজারল্যান্ডের একটা গোটা দলও আছে। তাই খেলোয়াড়দের সবরকম নিরাপত্তার দায়িত্ব রয়েছে আয়োজকদের। তবে অভিভাবকদের ব্যক্তিগত সিদ্ধান্তে হস্তক্ষেপ করা যায় না।”

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here