১৯৭৪ সালের বিশেষ ক্ষমতা আইনে মামলা বা গ্রেপ্তার নয়: হাইকোর্ট

0
89

বিলুপ্ত হওয়া ১৯৭৪ সালের বিশেষ ক্ষমতা আইনের ১৬(২) ধারায় মামলা না নেয়ার জন্য পুলিশ প্রধানকে নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। অস্তিত্বহীন আইন দিয়ে জনগনকে হয়রানি বা গ্রেপ্তার না করার জন্য আইজিপিকে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতেও নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

আজ সোমবার (২৩ জুলাই) এ সংক্রান্ত বেশ কয়েকটি মামলায় জামিন শুনানির সময় স্বপ্রণোদিত হয়ে বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন। সংশ্লিষ্ট আদালতের সহকারি অ্যাটর্নি জেনারেল ইউসুফ মাহমুদ মোর্শেদ জানান, এ আইনটি বাতিল হওয়ায় এর কোনো অস্তিত্ব নাই। আর এ কারণেই এ আইনের মামলা নেয়াও বেআইনী।

তিনি আরও জানান, বাতিলকৃত এ আইনে দায়ের করা বেশ কয়েকটি মামলার আসামিরা জামিন আবেদন করেন। ওই জামিন আবেদনের শুনানিতে বিষয়টি আদালতের দৃষ্টিগোচর হলে আদালত এ আদেশ দেন।

এ আইনের বিবরণে জানা যায়, ১৯৯০ সালে এরশাদ সরকারের পরে বিচারপতি সাহাবুদ্দীন আহমদ একটি অধ্যাদেশ দিয়ে চুয়াত্তরের আইনের ১৬, ১৭ ও ১৮ ধারা বাতিল করেন। যা বিএনপি ১৯৯১ সালে সংসদে পাস করে। পরে ২০০৭ সালে জরুরি অবস্থার মধ্যে ‘ক্ষতিকর ও ধ্বংসাত্মক’ (প্রধানত সরকার ও রাষ্ট্রবিরোধী) কাজ থেকে বিরত রাখতে ১৬ ধারাটি পুনরুজ্জীবিত করা হয়।

২০০৮ সালের নির্বাচনে আওয়ামী লীগ সরকার গঠনের পর এই অধ্যাদেশসহ ১২২টি অধ্যাদেশ সংসদের প্রথম অধিবেশনে পেশ করা হয়, কিন্তু তা পাস না হওয়ায় বিশেষ ক্ষমতা আইনের ১৬, ১৭ ও ১৮ ধারা বাতিলই থেকে যায়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here