অবরুদ্ধ শ্রমিকদের পায়ের রগ কেটে দেওয়ার হুমকি যুবলীগ নেতার !

0
366


নিজস্ব প্রতিবেদক:
আশুলিয়ায় নিজেদের দাবীকৃত টাকা ও মালামাল না পাওয়ায় একটি কনস্ট্রাকশন কারখানা চার দিন যাবৎ অবরুদ্ধ করে শ্রমিকদের মারধর করার অভিযোগ উঠেছে যুবলীগ নেতার লোকজনের বিরুদ্ধে।এমন কি ওই কারখানা থেকে কোন মালামাল প্রবেশ বা বের করতেও নিষেধ করে দেয় থানা যুবলীগের আহ্বায়ক কবির হোসেন সরকার। তাদের নিষেধ অমান্য করে মালামাল বের করার চেষ্টা করলে শ্রমিক, কর্মকর্তা দের মারধর করে পায়ের রগ কেটে দেওয়ার হুমকি দিয়েছে যুবলীগ নেতার লোকজন। আশুলিয়ার নরসিংহপুর এলাকার লালপাহাড় মহল্লায় বাংলাদেশ ফাউন্ডারি অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং ওয়ার্কস লিমিটেড (বিএফইডাব্লিউ) কারখানায় এ ঘটনা ঘটে।

কারখানার প্রকিউরমেন্ট কর্মকর্তা জাহিদ অভিযোগ করে বলেন, আশুলিয়ার শ্রিপুর ও নরসিংহপুরের লাল পাহাড় এলাকায় তাদের দুটি ওয়ার্কশপ রয়েছে। এসব ওয়ার্কশপে তারা কনস্ট্রাকশন কাজে ব্যবহৃত সরঞ্জাম মজুদ রাখেন। তবে গত কয়েক দিন যাবৎ থানা যুবলীগ নেতার লোক মাহফুজ ওই কারখানার মালামাল তাকে দিয়ে দেওয়ার জন্য বলতে থাকে। তার কথায় রাজী না হওয়ায় কারখানার গত চার দিন যাবৎ অন্তত কারখানার দশ শ্রমিককে মারধর করেছে যুবলীগ নেতার লোকজন।

এছাড়াও ওই কারখানা থেকে কোন মালামাল বের করার চেষ্টা করা হলে সবাইকে মারধর করে পায়ের রগ কেটে নেওয়া হবে বলেও হুমকি দেয় মাহফুজ। তিনি অভিযোগ করে আরো বলেন, কারখানার মালিক মুক্তিযোদ্ধা খন্দকার রহমত উল্লাহ। আশুলিয়া থানা যুবলীগের আহ্বায়ক মঙ্গলবার সকালে মালিকের মুঠোফোনে ফোন দিয়ে তাকে হুমকি দিয়েছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি। এছাড়াও স্থানীয়দের মাসোহারা দেওয়ার মতো কিছু নেই এই প্রতিষ্ঠানে।

জাহিদ বলেন, লালপাহাড়ের এই ওয়ার্কশপ থেকে তারা বিভিন্ন প্রকল্পে সরঞ্জামগুলো হস্তান্তর করে। তবে যুবলীগ নেতার হুমকির কারনে তাদের কার্যক্রম এখন বন্ধ করে রাখতে হয়েছে। যুবলীগ নেতা স্থানীয় প্রভাবশালী হওয়ায় তারা থানায় এখন পর্যন্ত কোন অভিযোগ দেয়নি।

এব্যাপারে আশুলিয়া থানা যুবলীগের আহ্বায়ক কবির হোসেন সরকারের মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করা হলেও তাকে পাওয়া যায়নি। তবে আশুলিয়া থানার পুলিশ পরিদর্শক (ওসি তদন্ত) জাবেদ মাসুদ বলেন, এ ধরনের কোন অভিযোগ তারা পায়নি। অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে বলেও তিনি জানান।