প্রিয়াঙ্কা বিয়ে খুশি নন সলমন!

0
72

দেশীগার্লের বিয়ের খবরে মশগুল এখন বলিপাড়া। চলছে প্ল্যানিং। কিন্তু এই বিয়েতে খুশি নন ভাইজান। না না কোনও প্রেমকথা নেই! তবে শোনা যাচ্ছে, এই বিয়ের জেরে নাকি ‘ভরত’ থেকে সড়ে গিয়েছেন পিগি চপস। আর তাতেই অসন্তুষ্ঠ হয়েছেন সলমন খান।

পরিচালক আলি আব্বাস ট্যুইট করে প্রিয়াঙ্কার ‘ভরত’ থেকে সড়ে যাওয়ার খবর দেন। কারণ হিসাবে জানান এটা নায়িকার” এর কারণ ‘নিক অফ টাইম’। আর তাই নতুন জীবনের জন্য টিম ‘ভরত’-এর তরফ থেকে অনেক অনেক শুভেচ্ছা জানিয়েছেন তিনি। কিন্তু প্রিয়াঙ্কার এমন সিদ্ধান্ত মোটেও ভাল ভাবে নেননি ডেভিল। বিশেষ সূত্রের খবর, অভিনেত্রীর ওপর সলমন প্রচণ্ড রেগে গিয়েছেন। আর কখনও প্রিয়ঙ্কার সঙ্গে কাজ না করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি।

সলমনের রাগ নিয়ে ওয়াকিবহল বলিপাড়া। সলমন-প্রিয়ঙ্কা সম্পর্ক এমনি ভাল নয়! ‘মুঝসে শাদি করোগি’ ছবির সময় বেশ বন্ধুত্ব জমে উঠেছিল তাঁদের মধ্যে। কিন্তু পরে চিড় ধরে সে সম্পর্কে। ২০০৭-এ সলমন একটি ছবিতে প্রিয়ঙ্কার বদলে ক্যাটরিনা কাইফকে নায়িকা করতে চান সল্লু কিন্তু প্রিয়ঙ্কা ছবি ছাড়তে রাজি হননি। তখন থেকে সলমন প্রিয়ঙ্কার ওপর চটা। যদিও পিসি এখন আন্তর্জাতিক তারকা, সলমনের অসন্তোষে তাঁর খুব বেশি যাবে আসবে বলে মনে হয় না।

দু’দিন আগে নিজের ট্যুইটার হ্যান্ডেলে ‘ভরত’ প্রথম লুক প্রকাশ করেছেন ছবির পরিচালক আলি আব্বাস জাফর। ছবিতে আগুনের রিংয়ের মাঝে বাইক নিয়ে দেখা যাচ্ছে ভাইজানকে। নীচে ক্যাপশনে লেখা “Ring of fire & Bharat”। ‘ভরত’ এর প্রথম লুক নিয়ে সিনেপ্রেমীদের মধ্যে প্রথম থেকেই একটা উৎসাহ ছিল। যা মুক্তির পর বাড়িয়ে দিল বেশ কয়েকগুন। লুক প্রকাশের সঙ্গে এদিন পরিচালক ঘোষণা করেছেন, পরের বছর ইদের দিন মুক্তি পাবে ‘ভরত’।

স্টান্ট ও ট্রাপিজের খেলা নিয়ে তৈরি ‘ভরত’। ২০১৪ সালে কোরিয়ার ব্লকবাস্টার মুভি ‘ওদে টু মাই ফাদার’ ছবির রিমেক। তবে ছবির পরিচালক আলি আব্বাস জাফর জানিয়েছেন, রাজ কাপুরের ছবি ‘মেরা নাম জোকার’ থেকে অনুপ্রাণিত ‘ভারত’। ভারতীয়-রাশিয়ান সার্কাসের কথা মাথায় রেখেই তৈরি হয়েছে ছবিটি। স্ট্রাপিজ ও রোপ স্টান্টের মিক্স স্টান্ট দেখা যাবে ছবিতে। তাইতো প্রথম লুকের ছবিতে সলমনকে স্ট্যান্টম্যান হিসেবে দেখানো হয়েছে। এছবিতে প্রায় ৬০ বছর সময়কালকে তুলে ধরা হয়েছে ছবিতে। সলমনের মোট পাঁচটি লুক এই ছবিতে দেখা যাবে। থাকছে দিশা পাটানি।