ঢাকায় ইরানি চলচ্চিত্রের শুটিং

0
143

বর্তমানে বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকায় চলছে ইরানি ছবি ‘শাবি কে মহ কমেল শোদ’ চলচ্চিত্রের শুটিং। এর নির্মাতা ইরানের নার্গিস অবইয়ার। শুটিং শুরু হয়েছে গত বৃহস্পতিবার থেকে। ধানমন্ডি এলাকায়। ছবির বিশ ভাগ কাজ হবে বাংলাদেশের বিভিন্ন লোকেশনে। কারওয়ান বাজার ও নিউমার্কেটে টানা আট দিন চলবে শুটিং।

ছবির বাংলাদেশ অংশের সমন্বয়কারী মুমিত আল রশিদ গণমাধ্যমের সঙ্গে আলাপকালে এসব তথ্য জানিয়েছেন। তিনি ইরানের একটি বিশ্ববিদ্যালয়ে পিএইচডি করছেন। যার কারণে গত বেশ কয়েক বছর ধরেই ইরানে অবস্থান করছেন।

‘শাবি কে মহ কমেল শোদ’ এর বাংলা অর্থ ‘যে রাতে চাঁদ পূর্ণতা পেয়েছিল’। গল্পের প্রয়োজনে বাংলাদেশে এর শুটিং হচ্ছে। বাংলাদেশের পাশাপাশি ছবির শুটিং হবে ইরান ও পাকিস্তানে। এটি রোমান্টিক গল্পের ছবি।

ছবিটি বাংলাদেশেও মুক্তি দেওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে নির্মাতার। আলাপের এক পর্যায়ে মুমিত এ তথ্যও জানান।

শুটিং প্রসঙ্গে মুমিত বলেন, ‘নার্গিস অবইয়ারের সঙ্গে যখন গল্পটি নিয়ে কথা হচ্ছিল, তখন বাংলাদেশের এই লোকেশনগুলোর নাম প্রস্তাব করি। এরপর এসব জায়গার ছবি দেখিয়েছি। তারপর বললেন, বাংলাদেশের অনেক জায়গার এখনো নিজস্বতা আছে। তাই প্রথম থেকে তিনি এখানে কাজ করার ব্যাপারে আগ্রহী ছিলেন। বাংলাদেশে আসার পর তিনি অবাক হয়েছেন।’

ছবিতে বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করছেন এলনাজ শাকেরদুস্ত, হুতান শাকিবা, ফেরেশতে সাদরে উরাফায়িসহ আরও অনেকেই। শুটিংয়ের জন্য ইরান থেকে বাংলাদেশে এসেছে ২২ সদস্যের একটি দল।

এলনাজ শাকেরদুস্ত ও হুতান শাকিবি ইরানের এ সময়ের ইরানের বাণিজ্যিক ছবির জনপ্রিয় তারকা। অন্যদিকে ছবির নির্মাতা নার্গিস অবইয়ারও ইরানের বাণিজ্যিক ঘরানার ছবির ব্যস্ত নির্মাতা।

ইরানি নির্মাতাদের মধ্যে অন্যতম নার্গিস আবইয়ার। গেল ৯০তম অস্কার অ্যাওয়ার্ড-এর আসরে বিদেশি ভাষার ছবির শাখায় অন্যান্য দেশের ছবির সঙ্গে প্রতিযোগিতা করেছে ইরান-ইরাক যুদ্ধ নিয়ে তার তৈরি ‘ব্রেথ’। ছবিটি প্রযোজনা করেছেন নার্গিস আবইয়ারের স্বামী মোহাম্মাদ হোসেইন কাশেমি। ‘শাবি কে মহ কমেল শোদ’ ছবির প্রযোজকও তিনি।