মোবাইল কোর্ট আসছে দে দৌড় !

0
130

আব্দুস ছালাম সফিক ঃ শনিবার (১৫ সেপ্টেম্বর) ঘড়িতে সময় তখন সকাল ৯টা ৪০ মিনিট। মানিকগঞ্জের সাটুরিয়ার বরাইদ ইউনিয়নের পাশে একটি মুদি দোকানে বেচাকেনা করছিলেন ব্যবসায়ী রেহাত উল্যাহ। হঠাৎ খবর এলো, মোবাইল কোর্ট আসছে। ধরতে পারলে জেল জরিমানা করা হবে। এই খবরে রাস্তার দোকানদারদের মধ্যে আতংক তৈরি হয়। তারা যে যার মতো দৌড়াদৌড়ি শুরু করে। মাত্র কয়েক মিনিটের মধ্যে দোকান বন্ধ করে ফেলে। যার যার জায়গা মত জিনিসপত্র সরিয়ে রাখে।

দেখা গেল মাত্র মাত্র পাঁচ মিনিটের মধ্যে উপজেলার দরগ্রাম, গোপালপুর ও সাভার বাজার এবং আশপাশের রাস্তার সব দোকান বন্ধ গেল। এরপর দেখা গেল উপজেলা নিরাপদ খাদ্য পরিদর্শকসহ তার কয়েকজন কর্মচারী আসলো। গাড়ি আসলো। এসে তারা দেখলো রাস্তা একেবারে পরিষ্কার। রাস্তা দিয়ে মানুষ স্বাচ্ছন্দ্যে হাঁটছে।

দেখা গেল, পরিদর্শকসহ তার লোকজন বাজারের আশপাশে কিছুক্ষণ অবস্থান করে চলে যান। এর ৫ মিনিট পর দোকানীরা আবার নিজের স্থানে বসে যান।

এই প্রতিবেদকের সঙ্গে আলাপকালে এক দোকানদার জানান, ম্যাজিট্রেট কিছুক্ষণ এদিকে ওদিক ঘুরাফেরা করে চলে গেছেন। আসলে আমরা আগেই খবর পেয়ে গেছি যে, মোবাইল কোর্ট আসছে। তাই কিছুক্ষণের জন্য দোকান বন্ধ রেখেছিলাম।

বিষয়টি নিশ্চিত করে বরাইদ ইউপি চেয়ারম্যান মো. হারুন-অর-রশিদ জানান, নিরাপদ খাদ্য পরিদর্শক এসেছিলেন। এসময় অধিকাংশ দোকান-পাট বন্ধ ছিল। দ্রত সময়ের মধ্যে সবাইকে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র হালনাগাদ করতে বলা হয়েছে।

এ বিষয়ে নিরাপদ খাদ্য পরিদর্শক নিলুফার ইয়াসমিন জানান, আমরা পৌঁছানোর আগেই অনেক দোকনদারেরা খবর পেয়ে যান। ফলে সবাইকে আইনের আওতায় আনা সম্ভব হয়নি। স্থানীয় চেয়ারম্যান মো. হারুন-অর-রশিদের অনুরোধে দোকানদারদেরকে প্রাথমিক ভাবে সতর্ক করা হয়েছে। এসময় কিছু ভেজাল খাদ্য উদ্ধার করা হয়েছে।