চাঁপাইনবাবগঞ্জে বিএনপির বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ

0
51

চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি ॥ বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি, নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে আগামী সংসদ নির্বাচন, নেতা-কর্মীদের নামে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারসহ ৭দফা দাবীতে কেন্দ্রীয় কর্মসূচীর অংশ হিসেবে চাঁপাইনবাবগঞ্জে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে বিএনপি।

বুধবার বিকেলে চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর থানা ও পৌর বিএনপির উদ্যোগে পাঠানপাড়াস্থ দলীয় কার্যালয়ের সামনে থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের হয়ে শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিন করে সাটু হল মোড়ে সমাবেশ করে। সমাবেশে প্রধান অতিথি ছিলেন বিএনপি কেন্দ্রীয় কমিটির ভাইস প্রেসিডেন্ট ও রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের সাবেক মেয়র মিজানুর রহমান মিনু। প্রধান বক্তা ছিলেন বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম মহাসচিব সাবেক এমপি হারুনুর রশীদ।

থানা বিএনপির সভাপতি তসিকুল ইসলাম তসির সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন সদর থানা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আমিনুল ইসলাম মতি, জেলা জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের সাধারণ সম্পাদক এ্যাড. নুরুল ইসলাম সেন্টু, পৌর বিএনপির সভাপতি এ্যাড. ময়েজ উদ্দিন ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো. নজরুল ইসলাম, জেলা ছাত্রদলের আহবায়ক ফারুক আহমেদসহ অন্যরা।

এসময় গোমস্তাপুর উপজেলা চেয়ারম্যান বিএনপি নেতা মো. বাইরুল ইসলাম, বিএনপি নেতা আব্দুল বারেকসহ বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশে প্রায় সহ¯্রাধিক বিএনপি ও অংগ সংগঠনের নেতা-কর্মী অংশ নেয়। দাবীগুলো হলো, বেগম খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তি এবং তাঁর বিরুদ্ধে দায়েরকৃত সকল মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার। বর্তমান জাতীয় সংসদ বাতিল করা। সরকারের পদত্যাগ ও সকল রাজনৈতিক দলের সাথে আলোচনা সাপেক্ষে নির্বাচনকালীন নিরপেক্ষ সরকার প্রতিষ্ঠা করা।

যোগ্য ব্যক্তিদের সমন্বয়ে নির্বাচন কমিশন পূণরগঠন করতে হবে। নির্বাচনে ইভিএম ব্যবহার না করার বিধান নিশ্চিত করা। সুষ্ঠু নির্বাচনের স্বার্থে প্রতিটি ভোটকেন্দ্রে ম্যাজিষ্ট্রেসি ক্ষমতাসহ স্বসস্ত্র বাহিনী নিয়োগ নিশ্চিত করা। নির্বাচনে স্বচ্ছতা নিশ্চিত করতে দেশীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যবেক্ষক নিয়োগের ব্যবস্থা নিশ্চিত করা এবং সম্পূর্ণ নির্বাচন প্রক্রিয়া পর্যবেক্ষণে তাদের উপর কোনো প্রকার বিধি-নিষেধ আরোপ না করা।

বিরোধী দলের রাজনৈতিক নেতা-কর্মীদের মুক্তি, সাজা বাতিল ও মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার। নির্বাচনের তফশীল ঘোষণার তারিখ থেকে নির্বাচনী ফলাফল চূড়ান্তভাবে প্রকাশিত না হওয়া পর্যন্ত চলমান সকল রাজনৈতিক মামলা স্থগিত রাখা ও নতুন কোনো ধরণের মামলা না দেওয়ার নিশ্চয়তা। পুরানো মামলায় কাউকে গ্রেফতার না করার নিশ্চয়তা।

কোটা সংস্কার আন্দোলন, নিরাপদ সড়কের দাবীতে শিক্ষার্থীদের আন্দোলন, সাংবাদিকদের আন্দোলন এবং সামাজিক গণমাধ্যমে স্বাধীন মত প্রকাশের অভিযোগে ছাত্র-ছাত্রী, সাংবাদিকসহ সকলের বিরুদ্ধে দায়েরকৃত হয়রানীমূলক মামলা প্রত্যাহার ও গ্রেফতারকৃতদের মুক্তির নিশ্চয়তা। সমাবেশে সরকারের দমন-পীড়ন, হামলা-মামলা, নেতা-কর্মীদের বিভিন্নভাবে হয়রানী, জাতীয় সংসদ নির্বাচন নিয়ে ষড়যন্ত্রের সমালোচনা করেন বক্তারা।