৩০ রানেই গুটিয়ে গেল সালমা খাতুনের দল !

0
60

সামনেই নারীদের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। উইন্ডিজে অনুষ্ঠেয় এই টুর্নামেন্টটির প্রস্তুতির জন্য আয়োজন করা হয়েছে পাকিস্তানের বিপক্ষে চার ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ। কিন্তু এই সিরিজের শুরুতেই হোঁচট খেয়েছে বাংলাদেশ নারী ক্রিকেট দল। পাকিস্তানের বিপক্ষে প্রতিরোধহীন হারের দিনে ৩০ রানেই গুটিয়ে গেছে সালমা খাতুনের দল।

চার ম্যাচ সিরিজের দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে পাকিস্তানের বিপক্ষে ৫৮ রানের ব্যবধানে হেরেছে বাংলাদেশের মেয়েরা। এদিন টস হেরে আগে ব্যাটিং করতে নেমে ১৪ ওভারে ৮৮ রান তোলে পাকিস্তান। জবাবে ১২.৫ ওভারে মাত্র ৩০ রানেই গুটিয়ে যায় গত কয়েক মাস ধরে দারুণ ক্রিকেট খেলে আসা বাংলাদেশের ইনিংস! নারী টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের ইতিহাসে এটা তৃতীয় সর্বনিম্ন দলীয় সংগ্রহ।

বুধবার কক্সবাজার শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামের একাডেমি মাঠে আউটফিল্ড ভেজা থাকায় নির্ধারিত সময়ের চেয়ে প্রায় এক ঘণ্টা পর মাঠে গড়ায় ম্যাচটি। ২০ ওভারের ম্যাচ নামিয়ে আনা হয় ১৪ ওভারে।

৮৯ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে শুরু থেকেই উইকেট হারাতে থাকে বাংলাদেশ। স্কোরকার্ডে ২৩ রান যোগ হতেই সাজঘরে ফেরেন দলের ৯ ব্যাটসম্যান। দেখা দেয় নারীদের টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের ইতিহাসে সর্বনিম্ন দলীয় রানে অলআউট হওয়ার শঙ্কা।

চলতি বছরের আগস্টে নামিবিয়ার বিপক্ষে ২৫ রানে অলআউট হয়েছে মোজাম্বিক নারী ক্রিকেট দল। নারী ক্রিকেটের ইতিহাসে এটিই দলীয় সর্বনিম্ন সংগ্রহ। কিন্তু অলরাউন্ডার রুমানা আহমেদের অপরাজিত ৯ রানের ইনিংসে ভর করে এই লজ্জা এড়িয়েছে বাংলাদেশ। এদিন বাংলাদেশের কেউই দুই অঙ্কের রান স্পর্শ করতে পারেননি। রুমানার করা ৯ রানই সর্বোচ্চ।

এর আগে নির্ধারিত ১৪ ওভারে ৫ উইকেটে ৮৮ রান তোলে পাকিস্তানের মেয়েরা। অধিনায়ক জাভেরিয়া খানের ব্যাট থেকে আসে সর্বোচ্চ ২৫ রান। এ ছাড়া নাহিদা ১৮, মুনিবা আলী ১০ ও আলিয়া রাজ অপরাজিত ১০ রান করেন।

বাংলাদেশের পক্ষে দুই উইকেট নেন নাহিদা আক্তার। এ ছাড়া জাহানারা আলম ও লতা মণ্ডল নেন একটি করে উইকেট। এই জয়ে সিরিজে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে গেল পাকিস্তান। বৃষ্টির কারণে আউটফিল্ড খেলার অনুপযোগী থাকায় সিরিজের প্রথম টি-টোয়েন্টি ম্যাচটি পরিত্যক্ত হয়েছে।