শ্লীলতাহানি হলে খুশিই হতাম-প্রীতি জিন্টা

0
41

তনুশ্রী দত্ত আর নানা পাটেকর ইস্যু থেকে শুরু হয়েছিল #MeToo বিতর্ক। তারপর থেকে অনেক সেলেব্রিটি এই বিতর্কে জড়িয়েছেন। কিন্তু অশালীন ব্যবহার পাওয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করে কেউ কোনও বক্তব্য পেশ করেছেন বলে এতদিন শোনা যায়নি। এবার প্রীতি জিন্টা সেটাই করলেন। সংবাদমাধ্যমের সামনে বলে বসলেন, তাঁর যদি কেউ শ্লীলতাহানি করত, তবে নতুন অভিজ্ঞতা হত তাঁর।

সম্প্রতি একটি টেলিভিশন চ্যানেলকে সাক্ষাৎকার দিতে গিয়েছিলেন প্রীতি জিন্টা। সেখানে তাঁকে প্রশ্ন করা হয় ইন্ডাস্ট্রিতে যে #MeToo নিয়ে এত অভিযোগ উঠছে, তাতে তাঁর কী মত? উত্তরে প্রীতি বলেন, তিনি কখনও ইন্ডাস্ট্রিতে শ্লীলতা হানির শিকার হননি। কিন্তু এমন ইচ্ছার কথা প্রকাশ করেন প্রীতি। বলেন, এমন ঘটনা ঘটলে হয়তো তিনি এই বিষয়ে আরও কিছু বলতে পারতেন। বিতর্ক আরও উসকে দিয়ে প্রীতি বলেন, “মানুষ তোমার সঙ্গে তেমন ব্যবহারই করবে, যেমন ব্যবহার তুমি করতে দেবে।”

কিন্তু আসলে নাকি তিনি এমন বলেননি। এমন দাবিও তুলছেন প্রীতি জিন্টা। জানিয়েছেন, তাঁর সাক্ষাৎকারটি বিকৃত করা হয়েছে। এর জন্য সরাসরি সাংবাদিকের দিকে আঙুল তুলেছেন তিনি। বলেছেন, তাঁর সাক্ষাৎকার এভাবে বিকৃত করায় তিনি বেশ হতাশ। তাঁর মনে হয়েছে এর ফলে সাক্ষাৎকারটির গুরুত্ব হারিয়েছে। এর সংবেদনশীলতাও তেমন নেই। তিনি আজ পর্যন্ত প্রায় ২৫টি সাক্ষাৎকার দিয়েছেন। কিন্তু এমন ঘটনা তাঁর সঙ্গে আগে কখনও ঘটেনি। তিনি আরও বলেছেন, শুধু বলিউড নয়, অনেক ইন্ডাস্ট্রিতেই মহিলাদের শ্লীলতাহানির শিকার হতে হয়। বলিউডে সেই তুলনায় অনেক কম হেনস্তার শিকার হতে হয় মহিলাদের।

তবে প্রীতির এই বক্তব্যের পর সোশাল সাইটে উঠতে শুরু করেছে বিতর্ক। কেউ লিখেছেন, ভারতের মতো দেশে যেখানে স্কুলছাত্রী পর্যন্ত ধর্ষণের হাত থেকে রেহাই পায় না, সেখানে একজন সেলিব্রিটি হয়ে প্রীতি এমন কথা কীভাবে বলেন? কেউ আবার এই প্রসঙ্গে প্রীতিকে সমর্থনও করেছেন।