পালং-জাজিরার নৌকার মাঝি ইকবাল হোসেন অপু

0
33

শরীয়তপুর প্রতিনিধিঃ একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সংসদীয় আসন ২২১ শরীয়তপুর-১ (পালং-জাজিরা) এর জন্য নৌকার প্রার্থী চুড়ান্ত হয়েছে। নৌকার নির্ভরযোগ্য মাঝি হিসেবে বৈঠা পেয়েছেন আওয়ামী লীগ কার্যনির্বাহী কমিটির অন্যতম সদস্য ও সাবেক ছাত্রনেতা জননেতা ইকবাল হোসেন অপু। সংবাদ পেয়েই আজ (রোববার) দুপুর ১২টা থেকে পালং-জাজিরা নির্বাচনী এলাকায় চলছে প্রাণের উচ্ছাস। এ যেন গণমানুষের চাহিদা পূরণের উল্লাস।

ইকবাল হোসেন অপুর সমথর্ক নেতাকর্মীগণ রং মেখে সং সেজে বাদকদল নিয়ে বেরেয়ে পড়েছে রাজপথে, বাজারে ও লোকালয়ে। শ্লোগানের মাধ্যেই বুঝিয়ে দিচ্ছে ইকবাল হোসেন অপুকে নৌকার প্রার্থী মনোনীত করায় জননেত্রী শেখ হাসিনাকে তারা লাল সালাম জানাচ্ছে। আনন্দ ছড়িয়ে পড়েছে সাধারণ মানুষের মাঝেও। তারাও উল্লাসে মেতে থাকা মানুষদের হাত নাড়িয়ে নিজেদের সমর্থণ প্রকাশ করছেন।

ইকবাল হোসেন অপু’র সমর্থকদের মধ্যে ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনা সেইদিন থেকেই লক্ষ্য করা গেছে। যেদিন থেকে তারা জানতে পেরেছে তাদের প্রিয়নেতা মনোনয়ন যুদ্ধে এগিয়ে আছে। দেশের বাইরে বাংলাদেশী প্রবাসীদের মাঝেও ইকবাল হোসেন অপু ব্যাপক জনপ্রীয় ব্যক্তিত্ব হয়ে উঠেছেন। ইকবাল হোসেন অপু সম্পর্কে আরো ভালোভাবে জানতে ওয়েব সাইড খোলা হয়েছে।

ইতোমধ্যে ইকবাল হোসেন অপুর সমর্থকগণ ফেসবুকসহ বিভিন্ন সামাজিক মাধ্যমে প্রচার প্রচারণা শুরু করে দিয়েছে। সমর্থকদের অনেকেই প্রিয় নেতার পক্ষে নৌকায় ভোট চাওয়া শুরু করেছেন। পালং-জাজিরাবাসীর মাঝে এক নতুন উৎসবের আমেজ লক্ষ্য করা গেছে। এ যেন দীর্ঘ প্রতিক্ষার পর উৎসবের মুখোমুখী হওয়া।


নির্বাচনী এলাকায় ঘুরে ভোটারদের সাথে আলাপ করে জানাগেছে, নেতৃত্বে পরিবর্তণ দরকার। এবার ইকবাল হোসেন অপু নৌকা নিয়ে আসছে। আমরা তাকে সাদরে গ্রহন করবো। শরীয়তপুর সদর থেকে দীর্ঘ ৩৫ বছর পরে কেউ নৌকার প্রার্থী মনোনীত হয়েছে। আমরা যারা অবহেলিত সাধারণ মানুষ তাদের জন্য ইকবাল হোসেন অপু সুদৃষ্টি কামনা করছি। শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে আমরা ইকবাল হোসেন অপুকে নৌকায় ভোট দিব। শরীয়তপুর-১ আসন শেখ হাসিনাকে আমরা উপহার দিব।

শরীয়তপুর সদর উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আলমগীর হোসেন আলম বলেন, ইকবাল হোসেন অপু একজন জননেতা। সে জনগনের নেতা। তার কাছে সকলেই শরীয়তপুরবাসী। ইকবাল হোসেন অপু যেমন মানবতার মা জননেত্রী শেখ হাসিনার ¯েœহধন্য তেমনি পালং-জাজিরা বাসীর জন্য আশির্বাদ। এ নেতাকে নৌকা প্রতিকে ভোট দিয়ে শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করার জন্য সকলের কাছে অনুরোধ করবো।

শরীয়তপুর পৌর মেয়র বাচ্চু বেপারী বলেন, ইকবাল হোসেন অপুকে মানবতার নেত্রী শেখ হাসিনা নৌকা প্রতিক দিয়েছে। আমরা এক জোট হয়ে নৌকায় ভোট দিয়ে শরীয়তপুর-১ আসন শেখ হাসিনাকে উপহার দিব। সে লক্ষ্যে আমরা কাজে নেমেছে। আমরা অবশ্যই সফল হবো।

জেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম আহবায়ক রাশেদুজ্জামান রাসেদ বলেন, গণমানুষের সারা জীবনের চাওয়া আজ পূরণ হয়েছে। মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তনের জন্য ইকবাল হোসেন অপুর নেতৃত্ব প্রয়োজন ছিল। শেখ হাসিনার সঠিক সিদ্ধান্তের জন্য শরীয়তপুরবাসী তার কাছে কৃতজ্ঞ। বন্ধবন্ধুর স্বপ্নকে বাস্তবায়নের লক্ষ্যে শেখ হাসিনা কাজ করছে। দেশে উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রয়েছে। পদ্মা সেতুর বাস্তবায়ন হলে শরীয়তপুর বাসীর ভাগ্যের উন্নয়ন হবে। আমরা বঙ্গবন্ধুর ও শেখ হাসিনার আওয়ামীলীগ দলীয় আদর্শ বিশ্বাস করি। ইকবাল হোসেন অপুর নির্দেশে আমরা সুন্দর ও শান্তিপূর্ণ ভাবে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করবো। আমরা নৌকার বিজয় ছিনিয়ে আনব।

উল্লেখ্য, নবম ও দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে এ আসন থেকে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ সাংগঠনিক সম্পাদক বিএম মোজাম্মেল হককে মনোনীত করা হয়েছিল। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নতুন মুখ হিসেবে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ কার্যনির্বাহী কমিটির অন্যতম সদস্য ইকবাল হোসেন অপুকে এ আসন থেকে মনোনয়ন দেয়া হয়।