হাকিম নড়বে, হুকুম নড়বে না-সিইসি

0
27

রাজনৈতিকভাবে সৎ থেকে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দায়িত্বপ্রাপ্ত নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটদের দায়িত্ব পালনের নির্দেশ দিয়েছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নূরুল হুদা।

নূরুল হুদা বলেন, ‘আচরণবিধি যেনো যথাযথভাবে পালিত হয়, সকল প্রার্থী যেনো সমান সুযোগ পায়। এই নির্বাচন কর্মকাণ্ড পরিচালনায় আপনাদের একদমই নিরপেক্ষ থাকতে হবে। নির্বাচনটা হতে হবে আইনানুগ।’

‘আমি আবারও বলি, আপনাদের দায়িত্ব হবে রাজনৈতিকভাবে সৎ। সবাইকে সমান চোখে দেখা, কারো জন্য বেশি দেখা, কারো জন্য কম দেখা – এ ধরনের আচরণ কখনো আপনারা করবেন না। কথায় আছে, হাকিম নড়ে কিন্তু হুকুম নড়ে না। এ রকম যেন হুকুম হয়, যেটা নড়বে না কখনো। এই জিনিসগুলো আপনাদের দেখতে হবে।’

রোববার একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেটদের উদ্দেশ্যে নির্বাচনি আচরণ বিধিমালা সংক্রান্ত ব্রিফিংয়ে এসব তিনি কথা বলেন ।

তিনি বলেন, ‘আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা, যারা নির্বাচনের কাজে নিয়োজিত থাকবেন- তারা আপনাদের আদেশেই দরকার অনুযায়ী গুলি চালাবেন। সুতরাং আপনারা পরিস্থিতি বিবেচনা করে মতামত দেবেন।

শাহাদাত হোসেন চৌধুরী বলেন, ‘আমরা চাই প্রতিটি ভোটার যেনো নির্বিঘ্নে ভোটকেন্দ্রে যেতে পারেন এবং ভোট দিয়ে নিরাপদে বাড়িতে ফিরতে পারেন।’

নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার বলেন, ‘একটা কথা বলা হয়ে থাকে- নির্বাচন আইনানুগ হতে হবে। এ কথাটা অবশ্যই ব্যাখার অবকাশ রাখে। আইনকে নিজস্ব পথে চলতে না দিলে নির্বাচন কখনও আইনানুগ হতে পারে না।সুতরাং যখনই আমরা বলবো, নির্বাচন আইনানুগ হতে হবে তখন এর সঙ্গে এও বলতে হবে, আইনকে তার নিজস্ব পথেই চলতে দিতে হবে। এটা করার দায়িত্ব কিন্তু আপনাদের। নিরপেক্ষভাবে আইনের প্রয়োগ না করলে সে আইন, আইন নয়, কালো আইন।’

নির্বাচন কমিশনার মো. রফিকুল ইসলাম বলেন, ‘শান্তি-শৃঙ্খলা বজায় রাখা ও সবার জন্য মান সুযোগ তৈরি করার জন্য আপনাদের নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। দায়িত্ব পালনের সময় অতি-উৎসাহী হবেন না। আবার নির্লিপ্তও থাকবেন না।’

নির্বাচন কমিশনার কবিতা খানম বলেন, ‘আইন প্রয়োগের ক্ষেত্রে নির্বাচন কমিশন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটদের পাশে আছে। তবে পক্ষপাতমূলক আচরণ খাটো করে দেখবে না কমিশন। বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) ও সেনাবাহিনী আপনাদের নির্দেশের অপেক্ষায় থাকবে। আপনারা তাদের যথা সময়ে নির্দেশনা দেবেন।’