তাইওয়ানে সমলিঙ্গের বিয়ের বৈধতায় আপত্তি !

0
25

নাগরিক অধিকারের জন্য সবচেয়ে বেশি সুখ্যাতি থাকা সত্বেও তাইওয়ানের জনগণ সমলিঙ্গের বিয়ের বৈধতায় আপত্তি জানিয়েছে। শনিবার এই সংক্রান্ত গণভোট হয়। সেখানে অধিকাংশ মানুষই না করে দিয়েছেন সমলিঙ্গের বিয়েতে।

২০১৭ সালের মার্চে তাইওয়ানের সর্বোচ্চ আদালত দেশটিতে সমলিঙ্গের বিয়ের পক্ষে রায় দিয়েছিল। এই সংক্রান্ত আইন প্রণয়ন ও পুরনো আইনগুলোর সংশোধনে সরকারকে দুই বছরের সময়ও বেঁধে দিয়েছিল তারা। গণভোটের ফল ওই রায়ের ওপর কী প্রভাব ফেলবে, তা নিয়ে এখন প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে।

বিবিসি বলছে, তাইওয়ানে শনিবার যে তিনটি পৃথক ভোট হয় তার কেন্দ্রবিন্দুতে চলে আসে সমলিঙ্গের বিয়ের বিষয়টিই। রক্ষণশীলরা দেশের পুরনো বিবাহ আইন বহাল রাখার পক্ষে প্রচার চালায়। যেখানে বিয়েকে পুরুষ ও নারীর মধ্যে সংসার গড়ার বৈধ উপায় হিসেবে দেখা হয়ে থাকে। আইনটির সংশোধন করে সমলিঙ্গের দম্পতিদের স্বীকৃতি চেয়েছিল অপরপক্ষ। শনিবারের গণভোটে রক্ষণশীলদের ‘পরিবার-পন্থি’ অংশই জয়ী হয়।

ভোটের আগে তাইওয়ানের সরকার বলেছিল, জনরায় যাই হোক না কেন, আদালতের সিদ্ধান্ত বাস্তব করার ক্ষেত্রে তা প্রভাব ফেলবে না। এখন আগের বিবাহ সংক্রান্ত আইন না বদলে, নতুন একটি বিশেষ আইন করার চিন্তা করছে সেখানকার প্রশাসন।

গণভোটের ফল নতুন আইনটিকে দুর্বল করে দিতে পারে বলে আশঙ্কার কথা জানিয়েছেন সমলিঙ্গের বিয়ের সমর্থকরা। এতে সমকামী দম্পতিকে আইনী সুরক্ষা দেওয়ার বিষয়টি থাকলেও তাদের বিয়েকে স্বীকৃতি দেওয়া হচ্ছে না বলেও অনেকে ধারণা করছেন।