পারস্য উপসাগরে তেল রপ্তানি বন্ধ করে দেওয়া হয়- হাসান রৌহানি

0
17

ইটের জবাবে পাটকেল ছুড়লেন ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রৌহানি। বিশ্বের চতুর্থ তেল উত্পাদনকারী দেশ ইরানকে ভাত-পাতে মারার চেষ্টা করেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। প্রথম, পরমাণু চুক্তি ভঙ্গ করে ইরানের ওপর আর্থিক নিষেধাজ্ঞা চাপানো হয়। দ্বিতীয়, ইরানের থেকে তেল না কেনার জন্য সহযোগী দেশগুলির উপর ওয়াশিংটনের ক্রমশ চাপবৃদ্ধি।

ইরান এবার স্পষ্ট জানিয়ে দেয়, তেল আমদানি রুখলে, পারস্য উপসাগর থেকে রপ্তানি সম্পূর্ণ বন্ধ করে দেওয়া হবে। বাস্তবে এই সিদ্ধান্ত গ্রহণ করলে, বিশ্ব তেলের বাজারে অরজাকতা তৈরি হবে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

উল্লেখ্য, বারাক ওবামা প্রেসিডেন্ট থাকাকালীন ইরানের সঙ্গে যে পরমাণু চুক্তি হয়েছিল, ক্ষমতায় এসে সেই চুক্তি থেকে বেরিয়ে আসেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। পাশাপাশি ইরানের ওপর আর্থিক নিষেধাজ্ঞা চাপানো হয়।

এরই পরিপ্রেক্ষিতে, টেলিভিশন সাক্ষাত্কারে রৌহানি বলেন, “আমেরিকার জেনে রাখা উচিত, আমরা এখনও তেল বিক্রি করছি। ভবিষ্যতেও করব। তেল রপ্তানি রুখতে পারবে না তারা।” রৌহানির আরও হুঁশিয়ারি, যদি কোনও দিন তেল রপ্তানি বন্ধ করার চেষ্টা করে, তা হলে পারস্য উপসাগরের সম্পূর্ণ তেল রপ্তানি বন্ধ করে দেওয়া হয়।

(সূত্র: জি নিউজ)