ভয় নেই, ‘আপনারা ধানের শীষে ভোট দিবেন : ড. কামাল

0
108

গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেন আগামী ৩০ ডিসেম্বর সবাইকে নির্ভয়ে ভোট কেন্দ্রে যাওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন। তিনি বলেছেন, ‘ভয় নেই, আপনারা সবাই কেন্দ্রে যাবেন। ৩০ ডিসেম্বর ভোটের বিপ্লব করবেন। ১৬ ডিসেম্বর আমাদের বিজয় দিবস। ৩০ ডিসেম্বর আমরা ভোটের মাধ্যমে আরেকটি বিজয় অর্জন করব।’

বৃহস্পতিবার বিকেলে পুরানা পল্টনে ঐক্যফ্রন্টের কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে ড. কামাল এ আহ্বান জানান। ভোটারদের উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘আপনারা ধানের শীষে ভোট দিবেন। এটি কোনো দলের প্রতীক নয়, ঐক্যের প্রতীক। আমি কোনো দলের জন্য বলছি না, ঐক্যবদ্ধ জনগণের শক্তির পক্ষে বলছি। আপনারা ধানের শীষে ভোট দিবেন।’

ঐক্যফ্রন্ট নেতা বলেন, ‘পরিবর্তনের পক্ষে সারা দেশে বিপুল সাড়া পড়েছে। এই নির্বাচন শহীদদের স্বপ্ন বাস্তবায়নের। আমাদের বাস্তব ভিত্তি শহীদদের স্বপ্ন। তিনি বলেন, ‘এখন ৮ শতাংশ প্রবৃদ্ধির কথা বলে মুখে ফেনা তোলা হচ্ছে। আইয়ুব খানের সময়ে ১১ শতাংশ প্রবৃদ্ধি থাকার পরেও জনগণ ৬ দফা থেকে পিছিয়ে যাই নাই। আমরাও সরকারের উন্নয়নের কথাই ভোটের অধিকার থেকে সরব না। আইয়ুব খানকে প্রত্যাখ্যান করার কথা সবাই স্মরণ করেই ভোট দেব।’

কামাল হোসেন বলেন, ‘সারা দেশ থেকে আমাকে যারা মতামত দিয়েছেন, তারা নৌকার লোক হিসেবে দিচ্ছেন না। সিলেট থেকে বুধবার লোকজন আমাকে ফোন দিয়ে বলেছেন, আপনারাতো বিজয়ী হয়েই আছেন। সারা দেশ থেকেই মিনিটে মিনিটে আমাকে ফোন দেয়া হচ্ছে। তারা সবাই বলছেন, ব্যাপক সাড়া পাচ্ছি আমরা। আপনাদের কোনো ভয় নেই, সাহস করে কেন্দ্রে যাবেন। নির্বাচনে আমরাই বিজয়ী হব।’

প্রশাসনের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, ‘আমরা দলীয়করণ থেকে মুক্ত হতে ঐক্য করেছি। কোনো দলের স্বার্থে নয়, ৩০ ডিসেম্বর জনগণের স্বার্থে প্রশাসনকে কাজ করতে হবে।’ চলমান পরিস্থিতিতে পুলিশের অবস্থান সম্পর্কে কামাল হোসেন বলেন, ‘পুলিশইতো আমাকে বলেছে, স্যার এগুলোতো আমরা আদেশিত হয়ে করছি। ৩০ তারিখতো আপনারাই বেরিয়ে আসছেন।’

সংবাদ সম্মেলনে ঐক্যফ্রন্টের মুখপাত্র ও বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, ‘ইতোমধ্যে সরকারের নৈতিক পরাজয় হয়ে গেছে। এজন্য তারা প্রশাসনের ওপর ভর করেছে।’ সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, ‘আপনারা জাতির বিবেক, কোনো চাপে মাথা নত করবেন না। সত্য তুলে ধরবেন।’ এ সময় মির্জা ফখরুল দেশবাসীর কাছে আবারও ৩০ ডিসেম্বর ধানের শীষে ভোট প্রার্থনা করেন।

সংবাদ সম্মেলনে কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি বঙ্গবীর আব্দুল কাদের সিদ্দিকী বলেন, ‘দেশের মানুষের মধ্যে কোনো ভয় নেই। এখন যা করা হচ্ছে, এটা স্রেফ নাজেহাল। এত নিপীড়নেও কিন্তু সাধারণ মানুষ দমে যাইনি। তারা সরকারি দলের প্রতি আরও বিক্ষুদ্ধ হয়েছে, হচ্ছে।’ নির্বাচন ঘিরে আজকের এই পরিস্থিতির জন্য নির্বাচন কমিশন নিন্দিত হবেন বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

এর আগে দলীয় কার্যালয়ে ভোটের দু’দিন আগে সর্বশেষ রাজনৈতিক পরিস্থিতি ও নির্বাচনের প্রস্তুতি নিয়ে বৈঠক করেন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষনেতারা।

জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের প্রধান নেতা ও গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেনের সভাপতিত্বে বৈঠকে বিএনপি মহাসচিব ও ঐক্যফ্রন্টের মুখপাত্র মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. আব্দুল মঈন খান, কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি বঙ্গবীর আব্দুল কাদের সিদ্দিকী, গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, গণফোরা মের কার্যকরি সভাপতি সুব্রত চৌধুরী, নাগরিক ঐক্যের নেতা শহিদুল্লাহ কায়সার, গণফোরামের প্রেসিডিয়াম সদস্য জগলুল হায়দার আফ্রিক প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।