ঝিনাইদহে হিজড়াদের অভ্যান্তরীন কোন্দলে প্রতিপক্ষকে কুপিয়ে হত্যাচেষ্টা !

0
150

স্টাফ রিপোর্টার, ঝিনাইদহঃ ঝিনাইদহে হিজড়াদের অভ্যান্তরীন কোন্দলে টাকা ছিনতাই ও প্রতিপক্ষকে কুপিয়ে হত্যাচেষ্টায় ঝিনাইদহ সদর থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছে হিজড়া সম্প্রদায়ের একাংশ।

গতকাল শহরের চাকলাপাড়া পুরাতন হাটখোলার কালী মন্দিরের সামনে রাত ৯টার দিকে এক দল সন্ত্রাসী শিউলী হিজড়া (২৮) ও বর্ষা হিজড়া (৩০) কে অভ্যান্তরীন কোন্দলে হত্যা করার উদ্দেশ্যে জিআই পাইপ, লাঠি, চাপাতি, ডাসা ও চাইনিজ কুড়াল দিয়ে পিটিয়ে ও কুপিয়ে গুরুতর জখম করেছে।

এ ঘটনায় ঝিনাইদহ সদর থানায় ব্যাপারীপাড়ার মনোয়ার হিজড়া (৬৫), পানামী’র (বর্তমান কাঞ্চননগর) আকাশী হিজড়া (৪৫), ভুটিয়াগাতীর আনোয়ারা হিজড়া (৫০), কালিচরণপুরের (বর্তমান-মহিলা কলেজপাড়া) রুহুল আমিনের ছেলে মোঃ আরিয়ান (২৬) ও মহিষাকুন্ডুর রুহুল আমিনের ছেলে মোঃ আরিফ ওরফে ভাগ্নে আরিফ (৩৫) গং সর্বথানা ও জেলাঃ ঝিনাইদহ এবং অজ্ঞাতনামা ১০/১২ জনের বিরুদ্ধে আহত শিউলী হিজড়া একটি অভিযোগ দায়ের করেছে।

শিউলী হিজড়া অভিযোগ পত্রে বলেন, আমি শিউলী হিজরা (২৮), পিং মৃত আয়ুব কাজী, সাং-আদর্শপাড়া, থানা ও জেলা: ঝিনাইদহ। অদ্য ১৯ই জানুয়ারি শনিবার ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে ভর্তি থাকিয়া আমার সহকর্মী বর্ষা হিজড়া (৩০), পিং মৃত আলীজান মীর, সাং-চাকলাপাড়া, থানা ও জেলা: ঝিনাইদহ এর মাধ্যমে আসামী ১। মনোয়ার হিজড়া, (৬৫), পিং মৃত নাসির মোল্যা, সাং-ব্যাপারীপাড়া, ২। আকাশী হিজড়া (৪৫), পিং ইমরাত আলী, সাং-পানামী, বর্তমান কাঞ্চননগর, ৩। আনোয়ারা হিজড়া, (৫০), পিং মৃত আঃ রহিম শেখ, সাং ভুটিয়াগাতী, ৪। মোঃ আরিয়ান (২৬), পিং মোঃ রুহুল আমিন, সাং-কালিচরণপুর, বর্তমান-মহিলা কলেজপাড়া, ৫। মোঃ আরিফ (২) ভাগ্নে আরিফ (৩৫), পিং-মোঃ রুহুল আমিন, সাং-মহিষাকুন্ডু , সর্বথানা ও জেলাঃ ঝিনাইদহ এবং অজ্ঞাতনামা ১০/১২ জনের বিরুদ্ধে এই মর্মে অভিযোগ করিতেছি যে, আমরা হিজরা সম্প্রদায়ের লোক আসামী মনোয়ারা হিজড়া, আকাশী হিজরা ও আনোয়ারা হিজড়া গণ সম্প্রদায়ের লোক। আমরা বিভিন্ন এলাকায় গান-বাজনা ও নাচ করিয়া জীবিকা নির্বাহ করি।

আসামী মনোয়ারা হিজড়া, আকাশী হিজড়া ও আনোয়ার হিজড়া গণ এলাকায় গান বাজনা নাচ করাকে কেন্দ্র করিয়া অনেক দিন যাবৎ বিরোধ সৃষ্টি করিয়া বহিরাগত সন্ত্রাসী আনিয়া আমাদের উপর বিভিন্ন প্রকারের অত্যাচার করিয়া আসিতেছে।

ইতিপূর্বে আসামীরা আমার ও আমাদের সরদার বর্ষা হিজড়ার নিকট হইতে বিভিন্ন সময় বিভিন্ন অংকের চাঁদা আদায় করিয়াছে। এই অবস্থায় ইং ১৮/০১/১৯ তাং রাত অনুমান ০৯.০০ টার সময় আমি, আমার সরদার বর্ষা হিজড়া, লতা হিজড়া (২৪), পিং আব্দুল মান্নান সাং-চাকলা পাড়া এবং আরো কয়েকজন চাকলাপাড়া পুরাতন হাটখোলার কালী মন্দিরের সামনে সিড়িতে বসি য়া কথাবার্তা বলাকালে উপরোক্ত আসামীগণ বে-আইনী জনতায় ১০/১২ টি মোটর সাইকেল যোগে হাতে চাপাতি, ডাসা, চাইনিজ কুড়াল, জিআই পাইপ, লাঠি প্রভূতি সহ আসিয়া আসামী মনোয়ার হিজড়া হুকুম দিলে আসামী আরিয়ান ডাসা দিয়ে আমাকে খুন করার উদ্দেশ্য মাথায় কোপ দিলে আমি ডান হাত উঁচু করিয়া প্রতিহত করিলে উক্ত কোপে আমার ডান হাতের কনুইয়ের নিচে লাগিয়া হাঁড়কাটুা গুরুতর জখম হয়।

আসামী আকাশী হিজড়া চাপাতি দিয়া আমার পিঠের বাম দিকে কোপ দিয়া গুরুতর রক্তাক্ত জখম করে। আসি সিড়ির পাশে নিচেই পড়িয়া গেলে আসামী আনোয়ারা হিজরা চাইনিজ কুড়াল দিয়া আমাকে খুন করার উদ্দেশ্য বাম পাশের উরুতে কোপ দিয়া গুরুতর জখম করে। আসামী আরিফ ওরফে ভাগ্নে আরিফ চাইনিজ কুড়াল দিয়া আমাকে খুন করার উদ্দেশ্য বাম পায়ের হাটুর নিচে কোপ দিয়া গুরুতর রক্তাক্ত জখম করে।

অজ্ঞাতনামা আসামীরা আমার সরদার বর্ষা হিজরা ও লতাকে লাঠি দিয়া এলোপাতাড়ী ভাবে
পিটাই য়া সর্বা শরীরে ফোলা জখম করে। আসামী আকাশী হিজরা বর্ষা হিজরার নিকট হইতে ২৬,০০০/- (ছাব্বিশ হাজার) টাকা কাড়িয়া নেয়। আমাদের ডাক চিৎকারে সাড়গী ১। স্বপ্না হিজড়া (৩০), পিং আঃ গফুর, সাং খাজুড়া ২। কারেশমা হিজড়া (৩০), পিং-মৃত সুলতান মাস্টার, সাং-উদয়পুর, ৩। মোঃ আঃ সালাম (২৭), পিংমোঃ ওসমান আলী, সাং-পুরাতন হাটখোলা, ৪। মোঃ রহমত আলী (৬০), পিং মৃত অজ্ঞাত সাং-মহিষাকুন্ডু, সর্বথানা ও জেলাঃ ঝিনাইদহ এবং আরো অনেকে আসিয়া বিদ্যুতের আলোতে ঘটনা দেখে।

ঘটনার পর সহকর্মী লতা হিজড়া লোকজনদের সহায়তায় আমাকে বর্ষা হিজড়াকে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে আনিলে আমাকে ডাক্তার ভর্তি করিয়া নেয়। বর্ষাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়া ছাড়িয়া দেয়। আমাদের চিকিৎসার জন্য ব্যস্ত থাকায় অভিযোগ দিতে বিলম্ব হইল।

এ ঘটনায় ঝিনাইদহ সদর থানার সদ্য যোগদান করা ওসি মিজানুর রহমান খান জানান, হিজড়াদের একটি অভিযোগ পত্র পেয়েছি, উভয় পক্ষকে থানায় ডেকে মিমাংশা করার চেষ্টা চলছে।