সাটুরিয়ায় অপহরণের পর মুক্তিপণের দাবী; তিন দিন পর লাশ উদ্ধার !

0
354

সাটুরিয়া (মানিকগঞ্জ) সংবাদদাতা ঃ মানিকগঞ্জের সাটুরিয়ায় মুক্তিপণের দাবীতে অপহরণের তিন দিন পর রোববার সকালে স্কুল ছাত্র এক শিশুর লাশ উদ্ধার করেছে র‌্যাব ও পুলিশ। নিহত ওই ছাত্রের নাম যোবায়ের হোসেন (৭)।

সে উপজেলার দিঘুলিয়া ইউনিয়নের জালশুকা এলাকার মো: শামসুল হকের ছেলে।যোবায়ের এ বছর স্থানীয় জালশুকা নাশুরপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রথম শ্রেণীর ছাত্র ছিল।

পুলিশ ও নিহতের চাচাতো ভাই মো: মোকলেছুর রহমান জানান, বৃহষ্পতিবার দুপুর ১টার দিকে নিজ বাড়ি থেকে যোবায়ের নিখোঁজ হয়। পরে স্বজনরা বিভিন্নস্থানে যোবায়ের সন্ধান চেয়ে মাইকিং করে খোঁজাখুঁজি করতে থাকে।

এসময় অজ্ঞাত পরিচয়ের এক ব্যক্তি যোবায়েরের বাবার কাছে মোবাইল ফোনে তার ছেলেকে (যোবায়ের) অপহরণের কথা জানায় এবং মুক্তিপণ বাবদ ৩ লাখ টাকা দাবি করে। টাকা না দিলে এবং পুলিশে খবর দিলে ছেলের ক্ষতি হবে বলে ওই ব্যক্তি হুমকি দেয়।


পরে যোবায়েরের মা মুক্তিপণের তিন লাখ টাকা নিয়ে ঢাকা জেলার সাভার এলাকায় অপেক্ষা করে। কিন্তু অপহরণকারীরা যোগাযোগ না করায় তিনি টাকা নিয়ে ফেরত আসেন।

এ ঘটনায় ওই দিনই সাটুরিয়া থানায় অভিযোগ প্রদান করা হয়। ফোন নাম্বারের একটি সূত্র ধরে র‌্যাব ৪ মো: মহিদুর রহমান (২৫) নামের এক যুবককে আটক করে। পরে তার দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে ওই এলাকার একটি লেবু বাগান থেকে যোবায়েরের মরদেহ উদ্ধার করেছে র‌্যাব ৪ ও সাটুরিয়া থানা পুলিশ।

সাটুরিয়া থানার ওসি আমিনুল ইসলাম জানান, অপহরণের অভিযোগ পেয়ে পুলিশ ও র‌্যাব শিশুটির মরদহে উদ্ধার করেছে। নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মানিকগঞ্জ সদর হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করে। অপহরণ ও হত্যার অভিযোগে দুই জনকে আটক করেছে র‌্যাব।