এসএসসিতে পরীক্ষার্থী বেড়েছে এক লাখের বেশি

0
56

শিক্ষামন্ত্রী দিপু মনি বলেছেন, আগামী ২ ফেব্রুয়ারি এসএসসি, দাখিল ও এসএসসি (ভোকেশনাল) পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। এ পরীক্ষায় মোট ২১ লাখ ৩৫ হাজার ৩৩৩ জন শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করবে। ২০১৯ সালের এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় পরীক্ষার্থীর সংখ্যা বেড়েছে ১ লাখ ৩ হাজার ৪৩৪ জন। এরমধ্যে ছাত্র বৃদ্ধি পেয়েছে ৪৭ হাজার ২২৯ জন এবং ছাত্রী বৃদ্ধি পেয়েছে ৫৬ হাজার ২০৫ জন।

বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা জানান।

মন্ত্রী জানান, এরমধ্যে ২৮ হাজার ৬৮২ টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ১০ লাখ ৭০ হাজার ৪৪১ জন ছাত্র এবং ১০ লাখ ৬৪ হাজার ৮৯২ জন ছাত্রী। এছাড়া মোট ৩ হাজার ৪৯৭টি কেন্দ্রে এ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

এছাড়াও ২০১৮ সালের তুলনায় এবার ১৩১টি প্রতিষ্ঠান, ৮৫টি কেন্দ্র বৃদ্ধি পেয়ছে বলেও জানান তিনি।

 

মন্ত্রী বলেন, পরীক্ষা শুরু হওয়ার ৩০ মিনিট আগে অবশ্যই পরীক্ষার্থীকে পরীক্ষা কক্ষে নির্ধারিত আসন গ্রহণ করতে হবে। পরীক্ষা শুরুর ২৫ মিনিট পূর্বে এসএমএস এর মাধ্যমে সংশ্লিষ্টদের নিকট প্রশ্নপত্রের সেটকোড জানিয়ে দেয়া হবে।

তিনি বলেন, সম্পূর্ণ নকলমূক্ত ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে পরীক্ষা অনুষ্ঠানের যাবতীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।

তিনি বলেছেন, গতবার যে পদ্ধতি গৃহীত হয়েছিল তার ফলে প্রশ্নপত্র ফাঁস হয়নি। এবারো আমরা আশা করছি এ বছর কোনো প্রশ্নপত্র ফাঁস হবে না। কেউ যদি গুজব রটায়, সেই গুজবে কান না দেয়ারও আহ্বান জানান তিনি। অভিভাবক এবং পরীক্ষার্থীর কেউ যাতে প্রশ্নপত্র ফাঁসের বিষয়ে প্রতারিত না হয় সেদিকে লক্ষ্য রাখতে হবে।

পরীক্ষা সংশ্লিষ্ট ব্যতীত অন্য কেউ কেন্দ্রে প্রবেশ করতে পারবে না বলেও জানান  শিক্ষামন্ত্রী দিপু মনি।

এসময় উপস্থিত ছিলেন শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল।