ইথিওপিয়ায় বিমান ভেঙে অন্তত ১৬৫ জনের মৃত্যুর আশঙ্কা !

0
28

ইথিওপিয়ার রাজধানী আদ্দিস আবাবা থেকে কেনিয়ার রাজধানী নাইরোবিগামী বিমান বোয়িং ৭৩৭ ভেঙে অন্তত ১৬৫ জনের মৃত্যুর আশঙ্কা করা হচ্ছে। ইথিওপিয়ার বিমানবন্দর সূত্রে খবর, বিমানে ১৫৭ জন যাত্রী এবং ৮ জন কেবিন ক্রু ছিলেন। কারওরই বেঁচে থাকার সম্ভাবনা প্রায় নেই বলেই মনে করা হচ্ছে। ইতিমধ্যেই ইথিওপিয়া প্রশাসন টুইট করে নিহতদের পরিবারকে সমবেদনা জানিয়েছে।

রবিবার সকাল ৮টা ৩৮ নাগাদ আদ্দিস আবাবার বোলে বিমানবন্দর থেকে উড়েছিল ইথিওপিয়ান এয়ারলাইন্সের বোয়িং ৭৩৭ বিমান। কেনিয়ার রাজধানী নাইরোবির উদ্দেশে ওড়া বিমানে ছিলেন ১৫৭ জন যাত্রী। ছিলেন ৮ জন কেবিন ক্রু। বিমানবন্দর সূত্রে খবর, বিমান ওড়ার কিছুক্ষণের মধ্যে ৮টা ৪৪ নাগাদই এয়ার ট্রাফিক কন্ট্রোলের সঙ্গে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়।

এমনিতে ইথিওপিয়ার বিমান পরিষেবা আফ্রিকার মধ্যে অন্যতম বড় পরিবহণ ব্যবস্থা। যাত্রী এবং পণ্য পরিবহণের ক্ষেত্রে বেশ নির্ভরশীল। ফি বছর ইথিওপিয়ার বিমানে ১ কোটি যাত্রী পরিবহণের রেকর্ড আছে।

দুর্ঘটনার তেমন ঘটনা সাধারণত ঘটে না। এর আগে ২০১০ সালে বেইরুট থেকে একটি বিমান ইথিওপিয়া যাওয়ার পথে বড়সড় দুর্ঘটনার কবলে পড়ে। তারপর থেকে বড় দুর্ঘটনার খবর নেই। ফের রবিবারের দুর্ঘটনায় সেই স্মৃতিই উসকে উঠছে।

ইতিমধ্যেই ইথিওপিয়া প্রশাসন টুইট করে নিহতদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা প্রকাশ করেছে। আর প্রশাসনের এই পদক্ষেপেই অনেকে মনে করছেন, বিমান দুর্ঘটনায় কোনও যাত্রীর বেঁচে থাকার সম্ভাবনা নেই। তা সত্ত্বেও প্রিয়জনদের খোঁজে বোলে বিমানবন্দরে ভিড় জমাচ্ছেন দুর্ঘটনাগ্রস্ত বিমানযাত্রীদের আত্মীয়, পরিজনরা।