টেইলর-নিকোলসকে কোনোভাবেই দমাতে পারছে না টাইগাররা

0
48

আবু জায়েদ রাহী তৃতীয় দিন দ্রুত দুই ওপেনারকে ফেরালেও ওয়েলিংটন টেস্টের দাপট নিউজিল্যান্ডের হাতে। চতুর্থ দিনের সকালটা রাঙাবেন টাইগাররা এমন আশা ছিল। দ্রুত উইকেট তুলে নিয়ে কিউইদের গুঁড়িয়ে দিতে চেয়েছিলেন। কিন্তু হচ্ছে উল্টোটা! উইকেটের খোঁজে পেস-স্পিনারদের মধ্যে যাকেই  ব্যবহার করা হচ্ছে না কেন, স্বাগতিকদের কোনো রকমেই দমানো যাচ্ছে না। সোজা কথা হচ্ছে উইকেট হয়ে গেছে ব্যাটিংবান্ধব। 

চতুর্থ দিনে মধ্যাহ্ন বিরতি পর্যন্ত নিউজিল্যান্ড করেছিল ৩ উইকেটে ১৯৮ রান। তারা প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশের চেয়ে মাত্র ১৩ রানে পিছিয়ে ছিল। সেখান থেকে আজ চতুর্থ দিনে কিউইদের স্কোর এখন ৩৭২! বোঝাই যাচ্ছে, বিশাল স্কোর করে তারা চাপে ফেলতে চাচ্ছে বাংলাদেশকে। 

বাংলাদেশ প্রথম ইনিংসে ২১১ রানে অল আউট হয়েছিল। আর নিউজিল্যান্ড আগের দিন শেষ করেছিল ২ উইকেটে ৩৮ রান। এই টেস্টের প্রথম দুদিন বৃষ্টিতে ভেসে গিয়েছিল। তৃতীয় দিনের পুরো সময় খেলা হতে পারেনি বৃষ্টির কারণে।

তৃতীয় দিন সফরকারীদের দুই পেসার ইবাদত হোসেন চৌধুরী এবং আবু জায়েদ রাহী মাত্র ৮ রানেই দুই ওপেনারকে (টম ল্যাথাম ৮ রান, জিত রাভাল ৩ রান) সাজঘরকে ফিরিয়ে ভালো কিছুরই ইঙ্গিত দিয়েছিলেন। এই ধারাবাহিকতাটা ধরে রাখার সুযোগ ছিল টাইগারদের সামনে। কিন্তু বৃষ্টি হতাশায় ডুবিয়ে তৃতীয় দিনের খেলা শেষ হয় ২৫.২ বলে। আর চতুর্থ দিনে আগের দিনের মতো একই ধারাবাহিকতায় বোলিং শুরু করেন রাহী এবং ইবাদত। 

কিন্তু উইকেট যেহেতু ব্যাটিংবান্ধব। আর এই সুযোগটি কাজে লাগাচ্ছেন রস টেইলর। টেস্ট ক্যারিয়ারের ১৮তম সেঞ্চুরিটাও তুলে নিলেন আর সঙ্গে দলকে বড় লিডের পথে এগিয়ে নিচ্ছেন। পেস-স্পিন দিয়ে চেষ্টা করেও তাকে দমানো যাচ্ছে না! ১৯৬ বলে ১৮৫ রানে এখনো ব্যাট করছেন টেইলর! তাকে সঙ্গ দিচ্ছেন হেনরি নিকোলস। তিনিও সেঞ্চুরির দ্বারপ্রান্তে পৌঁছে গেছেন। ১১৬ বলে ৯৩ রানে ব্যাট করছেন।

এর আগে তামিম ইকবালের ৭৪ রান ও শেষ দিকে লিটন দাসের ৩৩ রানের ইনিংস বাংলাদেশের ব্যাটিংয়ে বড় অবদান রাখে। তাতে প্রথম ইনিংসে সফরকারীদের সংগ্রহ হয় ২১১ রান।

এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত নিউজিল্যান্ডের সংগ্রহ ৩ উইকেটে ৩৯৫। ইতিমধ্যে ১৮৪ রানের লিড নিয়েছে স্বাগতিকরা।