পৃথিবীর সর্বোচ্চ বিপজ্জনক স্থানগুলো

0
107

ভ্রমণ কিংবা উন্নত জীবনযাত্রার আশায় অনেকেই কখনো সখনো বিদেশ পাড়ি দেয়ার কথা চিন্তা করে থাকবেন।  কিন্তু বিভিন্ন দেশ ভ্রমণের মাধ্যমে অনেকেরই ত্যক্ত অভিজ্ঞতার জন্ম হয়। কারণ পৃথিবীতে এমন অনেক দেশ কিংবা স্থান আছে যেগুলো সুন্দর হলেও পর্যটকদের জন্য এমকদমই নিরাপদ নয়। ফোর্বস ম্যাগাজিন ২০১৮ সালে বিশ্বব্যাপী এক সমীক্ষায় উঠে আসে, পৃথিবীর সবচেয়ে বিপজ্জনক কিছু স্থানের নাম। অপরাধ প্রবণতা থেকে শুরু করে প্রাকৃতিক প্রতিকূলতার কারণে এসকল স্থানকে বিপজ্জনক হিসেবে গণ্য করা হয়েছে। তো জেনে আসা যাক পৃথিবীর সবচেয়ে বিপজ্জনক কিছু স্থান সম্পর্কে যেগুলো ভ্রমন করার ক্ষেত্রে অবশ্যই পরিহার করা উচিৎ-

এলাগোয়াস, ব্রাজিল

এলাগোয়াস, ব্রাজিলএলাগোয়াস, ব্রাজিল
ফুটবলের দেশ ব্রাজিল সৌন্দর্য এবং সংস্কৃতির দিক থেকেও অনন্য। কিন্তু পৃথিবীর অন্যতম অপরাধপ্রবণ দেশ ব্রাজিল। মাদকজনিত অপরাধ থেকে শুরু করে অপহরণ প্রায় সকল ক্ষেত্রেই এই দেশটি লাতিন আমেরিকার শীর্ষে। ব্রাজিলের অপেক্ষাকৃত বড় শহর সাও পাওলো এবং রিও দে জেনিরো এর অপরাধের হার অনেক বেশি হলেও অপেক্ষাকৃত ছোট শহর এলাগোয়াস সকলকে ছাড়িয়ে গিয়েছে। সমুদ্র তীরবর্তী এই অত্যন্ত সুন্দর শহরটি অপরাধজনিত কারণে মৃত্যুর দিক থেকে ছাড়িয়ে গেছে লাতিন আমেরিকার সব শহরগুলোকেই। এলগোয়াসে প্রতি বছর অপরাধজনিত কারণে প্রায় ২ হাজারেরও বেশি মানুষ মৃত্যুবরণ করে। যা একে পরিণত করেছে ব্রাজিল তথা লাতিন আমেরিকার সবচেয়ে বিপজ্জনক শহরে।  

সানা, ইয়েমেন  

সানা, ইয়েমেন  

সানা, ইয়েমেন  
ইয়েমেনের রাজধানী সানা পূর্বে অনেক কারণেই বিখ্যাত ছিল। সানা পৃথিবীর সবচেয়ে প্রাচীন প্রসিদ্ধ শহরগুলোর একটি। এছাড়াও সানা পৃথিবীর সবচেয়ে উঁচুতে অবস্থিত রাজধানী। কিন্তু বছর বছর ধরে চলে আসা যুদ্ধ এই সুন্দর প্রাচীন শহরকে পৃথিবীর অন্যতম বিপজ্জনক শহরে পরিণত করেছে।। বোম্বিং, গুম, হত্যা এবং আততায়ীদের কারণেই সানা বর্তমানে মধ্যপ্রাচ্যের সবচেয়ে বিপজ্জনক স্থান। 

নেপলেস ,ইতালি 

নেপলেস ,ইতালি

 নেপলেস ,ইতালি 
নেপলেস ইতালির সবচেয়ে সুন্দর শহরগুলোর একটি। তাছাড়াও এটি ইতালিয়ান খাবার এবং প্রসিদ্ধ আর্কিটেকচারের জন্য একটি পর্যটন স্বর্গ। প্রথম দেখায় একে ইউরোপের সুন্দর প্রাচীন শহরগুলোর একটি মনে হলেও নেপলেসের একটি রহস্য রয়েছে যা একে করে তুলেছে ইউরোপের অন্যতম বিপজ্জনক পর্যটন কেন্দ্র হিসেবে। নেপলেস ক্যাম্পি ফ্লেরগেই নামক এক বৃহৎ সুপারভলকানোর উপর অবস্থিত। যেকোনো সময় এই ভলকানো সজাগ হতে পারে এবং এই ভলকানো থেকে অগ্নিৎপাত শুরুর হলেই প্রাণ যাবে লাখ লাখ মানুষের যার বেশিরভাগই পর্যটক।

ডেথ ভ্যালি, আমেরিকা 

ডেথ ভ্যালি, আমেরিকা 

ডেথ ভ্যালি, আমেরিকা 
যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ায় অবস্থিত এই মরূভূমিস্বরুপ স্থানের নামই এর বিপদের সংকেত দেয়। ডেথ ভ্যালি পৃথিবীর সবচেয়ে চরম আবহাওয়াপূর্ণ স্থানগুলোর একটি। কারণ গ্রীষ্মকালে ডেথ ভ্যালির সাধারণ তাপমাত্রা প্রায় ৫৬ ডিগ্রী সেলসিয়াস এবং রাতে এখানে থাকে হার কাপানো শীত। এছাড়াও শীতকালে এখানকার তাপমাত্রা কমে শূন্যের নিচে চলে যায়। তাছাড়াও ডেথ ভ্যালিতে হারিয়ে যাওয়ার প্রবণতাও অনেক বেশি। এসকল কারণই ডেথ ভ্যালিকে করে তুলেছে পৃথিবীর অন্যতম বিপজ্জনক স্থান। 

ফুকোশিমা, জাপান

ফুকোশিমা, জাপান

ফুকোশিমা, জাপান
ফুকোশিমা জাপানের অন্যতম প্রসিদ্ধ নগরের একটি ছিল। কিন্তু ২০১১ সালে ফুকোশিমায় ঘটে যায় মানব ইতিহাসের অন্যতম বড় দূর্ঘটনা। ভূমিকম্পন এবং জলোচ্ছ্বাসের কারণে ফুকোশিমায় অবস্থিত পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রে বিষ্ফোরণ ঘটে। যে কারণে ফুকোশিমাসহ আশেপাশের সকল স্থানেই ছড়িয়ে পড়ে পারমাণবিক তেজস্ক্রিয়তা। এতে মৃত্যু হয় হাজার হাজার মানুষের এবং মারাত্মক রোগে আক্রান্ত হয়ে পড়ে আরো লক্ষাধিক মানুষ। এভাবেই ফুকোশিমা জাপানের সবচেয়ে বিপজ্জনক স্থানে পরিণত হয়।

ফ্রাসার আইল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া

ফ্রাসার আইল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া

ফ্রাসার আইল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া 
ফ্রাসার আইল্যান্ডে রয়েছে অস্ট্রেলিয়ার সবচেয়ে সুন্দর বিচগুলো। সোনালী বালি এবং অত্যন্ত স্বচ্ছ নীল সমুদ্রের পানি মিশ্রণ ফ্রাসার আইল্যান্ডের উপকূলকে ভূ-স্বর্গে পরিণত করছে। কিন্তু একইসঙ্গে ফ্রাসার আইল্যান্ড অস্ট্রেলিয়ার সবচেয়ে বিপজ্জনক স্থানও বটে। এখানকার সমূদ্রে পানিতে রয়েছে বিষাক্ত সাপ, জেলিফিশ এবং হাঙ্গর। এছাড়াও উপকূলে রয়েছে হিংস্র ডিংগো কুকুর ও বিশাক্ত মাকড়শা। যে কারণে এই দ্বীপ মানুষের জন্য অত্যন্ত বিপজ্জনক।