আরজেএফ’র ১২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত

0
30

রুর‌্যাল জার্নালিষ্ট ফাউন্ডেশন (আরজেএফ) এর ১২তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে ২০ মার্চ  বিকেলে বাংলাদেশ প্রেস কাউন্সিল মিলনায়তনে আলোচনা সভা, শুভেচ্ছা বিনিময়, কেক কাটা ও বিশেষ দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হবে।

এতে প্রধান অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ প্রেসকাউন্সিলের চেয়ারম্যান বিচারপতি মোহাম্মদ মমতাজ উদ্দিন আহমেদ। আরজেএফ’র চেয়ারম্যান এস এম জহিরুল ইসলাম এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, সংগঠনের উপদেষ্টা ও বঙ্গবন্ধু গবেষণা পরিষদের সভাপতি লায়ন মোঃ গনি মিয়া বাবুল, প্রেস কাউন্সিলের সচিব (যুগ্ম সচিব) মোঃ শাহ আলম, জাতীয় কৃষক পার্টির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান শেখ আলমগীর হোসেন ও সংগঠনের উপদেষ্টা আলী নিয়ামত।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, সাপ্তাহিক নয়া পদক্ষেপ এর ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক ইনসুর আলী, সংগঠনের ভাইস চেয়ারম্যান সালাম মাহমুদ, স্থায়ী পরিষদ সদস্য শাহীন হোসেন, সাংস্কৃতিক সম্পাদক লুৎফুন নাহার রিক্তা,নরসিংদী জেলা আহ্বায়ক আবুল কালাম আজাদ, কোষাধ্যক্ষ সৈয়দ আল আমিন হোসেন, প্রচার সম্পাদক আমিনুল ইসলাম, যুগ্ম সাংগঠনিক সম্পাদক জামাল শিকদার, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক মোঃ মাসুদ আলম, ন্যাশনাল সার্ভিস একতা কল্যাণ পরিষদের সভাপতি মোঃ মোস্তফা আল ইযায, জুরাইন প্রেস ক্লাবের সভাপতি সাহেল আহমেদ সোহেল। অনুষ্ঠানে বিভিন্ন ক্ষেত্রে অবদানের জন্য ফাতেমা ইসলাম, খায়রুননেসা রিমি, ও দীপ আল নূর (হৃদয় চৌধুরীকে) আরজেএফ সম্মাননা ২০১৮ প্রদান করা হয়।

বিচারপতি মমতাজ উদ্দিন আহমেদ বলেন, সরকারের উন্নয়ন অগ্রগতিতে সাংবাদিকগণ সহায়ক ভূমিকা পালন করছে। এ ক্ষেত্রে গ্রামীণ সাংবাদিকদের কার্যক্রম প্রশংসনীয়। তিনি আরজেএফ’র শুভ কামনা করে বলেন, এই সংগঠন সততা ও নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালন করায় সকল মহলে আজ সমাদৃত।

লায়ন গনি মিয়া বাবুল বলেন, আরজেএফ’র সাংবাদিকদের পেশাগত মানোন্নয়নসহ মানবা ধিকার সু-নিশ্চিত করতে দক্ষতা ও নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালন করছে। ইতিমধ্যে এই সংগঠনের কার্যক্রম দেশব্যাপি বিস্তৃত হয়েছে। তিনি আরজেএফ’র উত্তরোত্তর সমৃদ্ধি কামনা করে বলেন, শক্তিশালী গণতন্ত্র ও মানবাধিকার সুনিশ্চিত করতে স্বাধীন গণমাধ্যম অপরিহার্য।

আলোচনা শেষে প্রয়াত সাংবাদিকদের আত্মার মাগফেরাত ও দেশ-জাতির সমৃদ্ধি কামনা করে বিশেষ দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। দোয়া মাহফিল পরিচালনা করেন, আরজেএফ’র সদস্য মাওলানা শামসুল হক হাবিবী।