সিলেট শহীদ মিনারে দুই মহিলার ধস্তাধস্তি; সোশ্যাল মিডিয়ায় সমালোচনার ঝড়

0
48

সিলেট অফিস : মঙ্গলবার (২৬শে মার্চ) পুরো জাতী যখন স্বাধীনতা দিবসে বীর শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদনে ব্যস্ত। ঠিক সেই সময় সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে দুই নারীর মাধ্যে কথা কাটাকাটির জের ধরে তাদের মাধ্যে ধস্তাধস্তির ঘটনা ঘটে।

সেই ধস্তাধস্তির ভিডিও ও ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রকাশ পেলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক, টুইটারসহ সিলেটের সর্বমহলে উঠেছে সমালোচনা ও নিন্দার ঝড়। মহান স্বাধীনতা দিবসে সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে ধস্তাধস্তির ঘটনা শহীদ মিনারের সম্মান ক্ষুন্য করেছে বলে মনে করে অনেকেই এই ঘটনার সমালোচনা করে দায়ীদের শাস্তি দাবী করেন। ঘটনার সময় শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে উপস্থিত অনেকে হতবিহ্বল ও বিব্রত হয়ে পড়েন। এ ব্যাপারে শামীমা স্বাধীন ও লিজা আক্তারের সাথে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।

শহীদ মিনারে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পন অনুষ্ঠানের ব্যবস্থাপনায় থাকা সম্মিলিত নাট্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক রজত কান্তি গুপ্ত বলেন, ঘটনার সময় আমি বাইরে ছিলাম। হাতাহাতির খবর পেয়ে শহীদ মিনারে এসে তাদের কাউকে পাইনি। তিনি বলেন, শহীদ মিনারের মতো জায়গায় স্বাধীনতা দিবসের দিন এমন ঘটনা খুবই দুঃখজনক ও নিন্দনীয়।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার (২৬শে মার্চ) সকাল ১১টার দিকে সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে এ ধস্তাধস্তির ঘটনা ঘটে। সকালে শহীদ মিনারে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পন করে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ও সংগঠন। সকাল সাড়ে ১০টার দিকে মহিলা আওয়ামী লীগ একটি মিছিল নিয়ে শহীদ মিনারে এসে পুৃষ্পস্তবক অর্পন করে।

মহিলা আওয়ামী লীগের মিছিলের সাথেই শহীদ মিনারে প্রবেশ করেন শামীমা। আর লিজা সেখানে আগে থেকেই ছিলেন। বিভিন্ন সংগঠনের পুষ্পস্তবক অর্পনের ছবি তুলছিলেন তিনি।মহিলা আওয়ামী লীগের পুষ্পস্তবক অর্পনের পরই কথা কাটাকাটি ও ধস্তাধস্তিতে জড়িয়ে পড়েন শামীমা ও লিজা। কথাকাটাকাটির জেরে তারা হাতাহাতি শুরু করেন বলে জানান প্রত্যক্ষদর্শীরা। সেখানে উপস্থিত অন্যরা তাদের শান্ত করেন।

উল্লেখ্য, কথা কাটাকাটি ও ধস্তাধস্তিতে জড়ানো দুই নারীর একজন সিলেট সিটি করপোরে শনের ১৮, ১৯, ২০ নং সংরক্ষিত ওয়ার্ডের সাবেক নারী ওয়ার্ড কান্ডসিলর শামীমা স্বাধীন, অপরজন গত নির্বাচনে ২৫, ২৬, ২৭ নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত নারী ওয়ার্ড কাউন্সিলর প্রার্থী লিজা আক্তার।