ইবিতে মহান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে বির্তক অনুষ্ঠিত

0
113


ইবি প্রতিনিধি: মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে ইসলামী বিশ^বিদ্যালয়ে ছায়া সংসদ প্রীতি বির্তক অনুষ্ঠিত হয়েছে। বিতর্কের বিষয় ছিল ‘অর্জিত স্বাধীনতা জাতীয় মুক্তি প্রদানে সক্ষম হয়েছে’। এই প্রস্তাবনার সরকারী পক্ষ ছিল সাদ্দাম হোসেন হল এবং বিরোধী পক্ষ ছিল শহীদ জিয়াউর রহমান হল। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭ টায় শহীদ জিয়াউর রহমান হল ডিবেটিং সোসাইটির আয়োজনে বির্তকটি অনুষ্ঠিত হয়।

বিতর্কে সরকার দলীয় প্রধানমন্ত্রী হিসেবে প্রতিনিধিত্ব করেন আল-আমিন মিলন। সরকার দলীয় মন্ত্রী ছিলেন আজিজুল হক ও সাংসদ ছিলেন জি কে সাদিক। অন্যদিকে বিরোধী দলীয় নেতা হিসেবে প্রতিনিধিত্ব করেন সোহান সাদিক। উপনেতা ছিলেন শাহাব উদ্দিন অসীম ও সাংসদ ছিলেন তামিম আদনান। সরকার দলীয় প্রধানমন্ত্রী ছায়া সংসদে প্রস্তাবনা উত্থাপন করে সঙ্গায়ন করেন। পরবর্তীতে এর বিপক্ষে ব্যাখ্যা দেন বিরোধী দলীয় নেতা। এরপর এই প্রস্তাবের পক্ষে বিপক্ষে মতামত দেন উভয় দল। এতে বর্তমান বাংলাদেশের উন্নয়ন ও সমস্যা বক্তব্যের মাধ্যমে ফুটে তোলার চেষ্টা করেন বক্তারা। উপস্থিত শিক্ষক শিক্ষার্থীরা আনন্দঘন পরিবেশে বিতর্কটি উপভোগ করেন।

বিতর্ক অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ও বিচারক হিসেবে শহীদ জিয়াউর রহমান হলের আবাসিক শিক্ষক ও ব্যবস্থাপনা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক কে এম সরফুদ্দীন, সাদ্দাম হোসের হলের আবাসিক শিক্ষক প্রভাষক শহিদুল ইসলাম, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলের আবাসিক শিক্ষক প্রভাষক শরিফুল ইসলাম জুয়েল উপস্থিত ছিলেন। এছাড়াও লালন শাহ হল ডিবেটিং সোসাইটির সভাপতি আব্দুল্লাহ আল মোনায়েম বিচারক হিসাবে উপস্থিত ছিলেন।

স্পীকারের দায়িত্ব পালন করেন ইসলামী বিশ^বিদ্যালয় ডিবেটিং সোসাইটির আহ্বায়ক শাহাদাত হোসেন নিশান ও টাইম কিপারের দায়িত্ব পালন করেন রায়হান বাদশাহ। এছাড়া বিশ^বিদ্যালয় প্রেসক্লাবের সভাপতি ফেরদাউসুর রহমান সোহাগ, সাধারণ সম্পাদক শাহাদাত তিমির, জিয়া হল ছাত্রলীগ নেতা হামিদুর রহমানসহ বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মী, বিভিন্ন হলের বিতার্কিক ও সাধারণ শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন। পরে বিচারকরা উভয় দলের অংশগ্রহন করা ৬ জনের হাতে ক্রেস্ট তুলে দেন।