কুবিতে নারী সাংবাদিকতা বিষয়ক সেমিনার

0
81


কুবি প্রতিনিধি: ‘সাংবাদিকতায় নারীরা এখন আর পিছিয়ে নেই। পূর্বে নানাবিধ দায়িত্বের ভার ও প্রতিবন্ধকতার কারণে নারীরা সাংবাদিকতায় আসতে না চাইলেও বর্তমানে আশঙ্কা কমছে। সংবাদকর্মী হিসেবে নারীদের অবস্থান দৃঢ় হচ্ছে।’- কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় প্রেস ক্লাবের প্রথম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত ‘সাংবাদিকতায় নারী: সমস্যা ও সম্ভাবনা’ শীর্ষক  সেমিনারে এসব কথা বলেন আলোচকবৃন্দ। 

সোমবার (৮ এপ্রিল) কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্মরত সাংবাদিক সংগঠনটিরর প্রথম বর্ষপূর্তি উদযাপনের অংশ হিসেবে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনের ৪১১ নং কক্ষে সকাল ১১টায় অনুষ্ঠিত হয় সেমিনারটি। এর আগে সকাল ১০টায় ক্যাম্পাস প্রাঙ্গণে একটি আনন্দ শোভাযাত্রা অনুষ্ঠিত হয়।

বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্য প্রফেসর ড. এমরান কবির চৌধুরীর নেতৃত্বে শোভাযাত্রাটি প্রশাসনিক ভবন থেকে শুরু হয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে বঙ্গবন্ধু ভাস্কর্যের সামনে এসে শেষ হয়। শোভাযাত্রা শেষে কেক কেটে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন উপাচার্য।

এসময় উপস্থিত ছিলেন শিক্ষক সমিতির সভাপতি ড. মো: শামিমুল ইসলাম; গণমাধ্যম উপদেষ্টা মাহবুবুল হক ভূঁইয়া; নিরাপত্তা উপদেষ্টা ড. দুলাল চন্দ্র নন্দী; সহকারী প্রক্টর শুভব্রত সাহা, রবিউল আলম; গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের প্রভাষক কাজী এম আনিছুল ইসলাম; সারাবাংলা ডট নেটের এক্সিকিউটিভ এডিটর মাহমুদ মেনন খান; বাংলা ট্রিবিউনের ডেপুটি নিউজ এডিটর ফাতেমা আবেদীন নাজলা; সংগঠনের সভাপতি শতাব্দী জুবায়ের, সাধারণ সম্পাদক মাহফুজ কিশোরসহ অন্যান্য সদস্য ও শুভাকাঙ্ক্ষীরা। 

‘সাংবাদিকতায় নারী: সমস্যা ও সম্ভাবনা’ বিষয়ক সেমিনারে সাংবাদিকতায় নারীদের পথচলায় বিভিন্ন সমস্যা ও তা থেকে উত্তরণের উপায়গুলো তুলে ধরেন বক্তারা। সেমিনারে সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক মাহফুজ কিশোরের সঞ্চালনা ও সভাপতি শতাব্দী জুবায়েরের সভাপতিত্বে আলোচনা পর্বে গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের প্রভাষক কাজী এম আনিসুল ইসলাম বলেন, ‘সাংবাদিকতা এমন পেশা যা নির্মোহ হতে শেখায়। যার মধ্যে অহংকার আছে সে কখনো ভাল সাংবাদিক হতে পারবে না।’

বাংলা ট্রিবিউনের ডেপুটি নিউজ এডিটর ফাতেমা আবেদীন নাজলা বলেন, ‘ইতিবাচক চিন্তাভাবনা ও চেতনা একজনকে ভালো সাংবাদিক হিসেবে গড়ে তোলে। আগেকার দিনের প্রতিবন্ধকতা কাটিয়ে সংবাদ প্রাঙ্গণে এখন নারীদের সংখ্যা বাড়ছে। তবে আশঙ্কা পুরোপুরি কাটেনি। তার জন্য নারী-পুরুষকে এক হয়ে কাজ করতে হবে।’ 

প্রধান আলোচকের বক্তব্যে সারাবাংলা ডট নেটের এক্সিকিউটিভ এডিটর মাহমুদ মেনন খান বলেন, ‘সাংবাদিকদের কোনো জেন্ডার নেই। এই পেশায় নারী-পুরুষ উভয়েরই পরিচয় তিনি সাংবাদিক। কে কতটা যোগ্য, কার অবস্থান কোথায়-তা বিবেচ্য হবে শুধুমাত্র নিজের লেখার মাধ্যমে। আর সেক্ষেত্রে বর্তমানে দেশের গণমাধ্যমে নারীদের অবস্থান দিনদিন প্রতিষ্ঠিত হচ্ছে।’ দেশে নারী সাংবাদিকতার মাত্র ১৩ শতাংশ উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘আমাদের পুরুষতান্ত্রিক মানসিকতা নারী-বিদ্বেষ কাটিয়ে উঠছে; তবে তাতে আরও সময় লাগবে।

সময়ের পরিবর্তনে সাংবাদিকতায় নারীদের অংশগহণ আরও বাড়বে বলে আশা করা যায়।’ 
সভাপতি শতাব্দী জুবায়ের বলেন, ‘পুরুষদের পাশাপাশি নারীরা সাংবাদিকতায় এগিয়ে আসলে সংবাদক্ষেত্র আরও সমৃদ্ধ হবে। কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় প্রেস ক্লাব আগামীতে আরও বৃহৎ পরিসরে অনুষ্ঠান আয়োজনের প্রত্যাশা রাখে।’ 

সেমিনারে আমন্ত্রিত অতিথিদের হাতে সম্মাননা স্মারক তুলে দেওয়া হয়। প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর পুরো আয়োজনে সার্বিক সহযোগিতা করছে জুমবাংলা ডট কম, ম্যাট্রিক্স ফুডস লি:, ক্যাফে হিল, আইটি প্যালেস ও খাদি ঘর। উল্লেখ্য, ২০১৮ সালের ০৪ এপ্রিল ‘সর্বদা সত্যের সন্ধানে’- স্লোগানে  কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় প্রেস ক্লাবের পথচলা শুরু হয়।