বৈশাখী মেলায় ইবি’র ট্যুরিজম বিভাগের ব্যতিক্রমী কার্যক্রম

0
98


আদিল সরকার, ইবি প্রতিনিধিঃ বাঙ্গালীদের নতুন জীবন ও নতুন বছরের কল্যাণের প্রতীক হলো বাংলা নববর্ষ। আর এই নববর্ষকে সাদরে গ্রহন ও আমন্ত্রণ জানাতে তিন দিন ব্যাপী বৈশাখী মেলার আয়োজন করেছে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগ, সামাজিক  ও সেচ্ছাসেবী সংগঠনের অংশগ্রহণে মেলায় গড়ে উঠেছে জমকালো বিভিন্ন ধরনের দোকান। দুপুর গড়ালেই প্রতিটি দোকানে দেখা যায় শিক্ষার্থী সহ সাধারণ মানুষের উপচেপড়া ভিড়।

এ ভিড়ের মধ্যে সবাই নিজেদের মতো কেনাকাটায় ব্যস্ত। কেউ ব্যস্ত তার প্রিয় মানুষকে নিয়ে সেলফি উঠাইতে। আবার কেউ ব্যস্ত বিভিন্ন স্বাধের খাবার খেতে। আর এই খাবার খেয়ে যেখানে-সেখানে ছড়িয়ে ফেলছে উচ্ছিষ্ট খাবার, প্লাস্টিকের গ্লাস, কাপ, বোতল, ও কাগজের ঠোঙাসহ ময়লা আবর্জনা।

এই ময়লা-আবর্জনা পরিষ্কারের ব্যাতিক্রমী উদ্যোগ নিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্যুরিজম এন্ড হসপিটালিটি ম্যানেজমেন্ট বিভাগের শিক্ষার্থীরা। তাদেরকে নিজ বিভাগের নামে টি-শার্ট আশ্রিত হাতে ঝুড়ি নিয়ে এ ময়লা পরিষ্কার করতে দেখা যায়।

পরিচ্ছ ন্নতায় সচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যেই মেলায় এই পরিচ্ছন্ন অভিযান চালিয়েছে বলে জানায় তারা। পরিষ্কার কাজে অংশ নেয়া আব্দুল মালেক ফাহাদ বলেন, পরিবেশ সংরক্ষণ রাখার দায়বদ্ধতা থেকেই আমরা এই পরিচ্ছন্ন অভিযান চালিয়েছি।

তাছাড়া মেলায় সবাই বিভিন্ন খাবার খেয়ে আশপাশ অপরিষ্কার করেছে। তাই মেলার পরিবেশ পরিষ্কার রাখার তাগিদে এবং সবাইকে নির্দিষ্ট জায়গায় ময়লা ফেলানোর ম্যাসেজ জানানোর জন্য আমাদের এই কার্যক্রম।

পরিষ্কার কাজে অংশ নেয়া আবু সালেহ নামের আরেক শিক্ষার্থী বলেন, ‘পবিত্রতা ঈমানের অঙ্গ। সবসময় পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন থাকা প্রয়োজন। আমরা যদি নিজ উদ্যোগে আমাদের আশপাশের জায়গা পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখি, তাহলে পুরো বাংলাদেশ পরিচ্ছন্ন হয়ে যাবে।’

এদিকে মেলায় ঘুরতে আশা এক দর্শনার্থী শিক্ষার্থীদের অভিনন্দন জানিয়ে বলেন, ‘কোনো কাজই ছোট নয়। তোমরা যে কাজ করছো তা সত্যিই সম্মানজনক। এ পরিচ্ছন্নতা কর্মসূচি সৌন্দর্য্যমন্ডিত ও নান্দনিক ক্যাম্পাস গড়ে তুলতে ভূমিকা রাখবে।’

আইন বিভাগের শিক্ষার্থী মির শুভ বলেন, সত্যিই খুবই ভাল লেগেছে যখন ট্যুরিজম এন্ড হসপিটালিটি ম্যানেজমেন্ট বিভাগের শিক্ষার্থীদের এই রকম ব্যাতিক্রম কাজকর্ম করতে দেখেছি। কেননা তাদের এই পরিষ্কার অভিযান সত্যিই অনেক শিক্ষনীয়। যা জনসাধারণকে সচেতন করে তুলতে সহায়তা করবে।

পরিবেশের প্রতি সচেতন থাকার আহবান জানিয়ে ট্যুরিজম এন্ড হসপিটালিটি ম্যানেজমেন্ট বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক ড. মাহবুবুল আরফিন বলেন, আমাদের পরিবেশের প্রতি খুবই সহনশীল হতে হবে। বিভাগের শিক্ষার্থীদের শিক্ষনীয় কার্যক্রমের অংশ হিসেবে তারা এই পরিচ্ছন্ন অভিযান চালিয়েছে। বিভাগের শিক্ষার্থীদের এমন ব্যাতিক্রম কাজকর্ম সত্যিই প্রশংসনীয় বলে আমি মনে করি।