বঙ্গবন্ধুর বায়োপিকের বাজেট ৪০ কোটি টাকা

0
41

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জীবনী অবলম্বনে নির্মিত হচ্ছে বায়োপিক। ভারত-বাংলাদেশের যৌথ প্রযোজনার এ ছবিটির নির্মাণ করবে শ্যাম বেনেগাল। ছবিটির মূল বাজেট ধরা হয়ে ৩৫ কোটি রুপি। বাংলাদেশের হিসাবে প্রায় ৪০ কোটি টাকা। আর এই ব্যয়ের ৬০ ভাগ বহন করবে বাংলাদেশ বাকি ৪০ ভাগ দেবে ভারত।

গেল মঙ্গলবার দিল্লিতে সিনেমা সংক্রান্ত একটি বৈঠকে অংশ নেন দুই দেশের প্রতিনিধিদল। এই বৈঠকে ছবিটির মূল বাজেট নিয়ে আলোচনা হয়। বৈঠকে বাংলাদেশের পক্ষে নেতৃত্ব দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আন্তর্জাতিক বিষয়ক উপদেষ্টা গওহর রিজভী। বাকি চার সদস্য হলেন তথ্য সচিব আবদুল মালেক, বিএফডিসি’র পরিচালক (প্রডাকশন) নুজহাত ইয়াসমিন, মন্ত্রণালয়ের উপসচিব (চলচ্চিত্র বিভাগ) প্রতাপ চন্দ্র বিশ্বাস ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নিয়ে ডকুফিল্ম ‘হাসিনা: অ্যা ডটারস টেল’-এর নির্মাতা রেজাউর রহমান খান পিপলু।

আর ভারতের পক্ষে এতে অংশ নেন প্রখ্যাত নির্মাতা শ্যাম বেনেগাল, দেশটির দূরদর্শন টিভি ও অল ইন্ডিয়া রেডিওর কর্মকর্তারা।

ভারতীয় গণমাধ্যম জানিয়েছে, কয়েক সপ্তাহের মধ্যে দুই দেশের মধ্যে চুক্তি স্বাক্ষরিত হবে। এই বৈঠক প্রসঙ্গে নির্মাতা শ্যাম বেনেগাল বলেন, ‌মঙ্গলবার সারাদিন আমাদের দীর্ঘ আলোচনা হয়েছে। চলচ্চিত্রটি নির্মাণে প্রচুর গবেষণা দরকার। এরপর বিভিন্ন ভাষা অনুযায়ী ছবিটির চিত্রনাট্য তৈরি হবে।

সেখানে আরো জানানো হয়, নভেম্বরে শুরু হবে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বায়োপিকের শুটিং। আর ছবির দৈর্ঘ্য হবে ১৮০ মিনিট বা তিন ঘণ্টা। ছবির শুটিং শুরু হয়ে গেলে ৮০ দিনেই দৃশ্যধারণের কাজ শেষ করতে পারবেন বলে আশা করেন শ্যাম বেনেগাল। শুটিং পরবর্তী কাজ হবে মুম্বাইতে। আর ছবিটি ২০২০ সালেই মুক্তির জন্য প্রস্তুত হবে বলেও জানান পরিচালক।

তবে, ছবির অভিনয়শিল্পী নির্বাচন নিয়ে কিছুটা চ্যালেঞ্জের মধ্যে আছেন পরিচালক। তিনি বলেন, ছবির অধিকাংশ অভিনয়শিল্পী নেয়া হবে বাংলাদেশ থেকেই। কিন্তু বঙ্গবন্ধুর চরিত্রে কে অভিনয় করবেন তা নির্বাচন করা খুব কঠিন।

শ্যাম বেনেগাল আরো জানিয়েছেন, ছবির চিত্রনাট্যকার অতুল তিউয়ারি আগামী সপ্তাহেই ঢাকায় আসবেন এবং সংগ্রহ করবেন প্রয়োজনীয় তথ্য। তার এই গবেষণায় সাহায্য করবেন নির্মাতা রেজাউর রহমান খান পিপলু।

এর আগে ১ এপ্রিল ঢাকায় এসেছিলেন ছবিটির পরিচালক ভারতীয় নির্মাতা শ্যাম বেনেগাল। তখন তিনি বাংলাদেশে চলচ্চিত্র উন্নয়ন করপোরেশনে (বিএফডিসি) একটি বৈঠকেও অংশ নেন। সাক্ষাৎ করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গেও। এরপর এফডিসি ও গাজীপুরের শফিপুরে বঙ্গবন্ধু ফিল্ম সিটিতে গিয়ে সম্ভাব্য লোকেশনও দেখেন এই নির্মাতা।