‘স্বামী আমার চেয়ে ১০ বছরের বড়- কারিনা

0
47

প্রেমে বয়স যে বাধা হতে পারে না, একটু ঘাঁটলেই তার ভূরি ভূরি প্রমাণ মিলবে। তবে জনতার মুখ তো আটকে রাখা যায় না। প্রিয়াঙ্কা চোপড়ার বয়স কেন ৩৬ আর স্বামী নিক জোনাসের কেন ২৬, এসব প্রসঙ্গে বলাবলি চলেছেই। তাতে কি আর যুগল থেমেছেন? কারিনা কাপুরের ক্ষেত্রেও এমনটা ঘটেছে। স্বামী সাইফ আলি খান তাঁর চেয়ে ১০ বছরের বড়। এ নিয়ে নানা কথা শুনতে হয়েছে তাঁকে।

বলিউড অভিনেত্রী কারিনা কাপুর মনখোলা মানুষ। ভেতরের কথা বলতে লজ্জাবোধ করেন না। কে কী ভাবল, তার পরোয়াও করেন না। সম্প্রতি ‘হিউম্যানস অব বোম্বে’র সঙ্গে কথা হয় কারিনার। সেখানেই সাইফের সঙ্গে তাঁর বিয়ে, মাতৃত্ব, সন্তান তৈমুরকে নিয়ে অনেক কথাই বললেন।

কারিনা বলেন, “যখন বোর্ডিং স্কুল শেষ করি, কারিশমা (বড় বোন) তখন অভিনয় শুরু করেছে। ওর ভক্ত ছিলাম, মনে আছে ওর ‘দিল তো পাগল হ্যায়’ দেখে আবেগাক্রান্ত হয়ে পড়েছিলাম। সবকিছু দিয়েই ও নিজেকে ধরে রেখেছে, ওকে দেখেই অভিনয়ে ইচ্ছে জেগেছিল। তো, যখন আমার সময় এলো, একজন নারী হিসেবে ইন্ডাস্ট্রিতে কীভাবে পথ চলতে হবে, সেসব সম্পর্কে শিক্ষাটা ও-ই দিয়েছিল।

শুরুটা দারুণ ছিল, অসাধারণ সব ছবি করলাম। কিন্তু কয়েক বছর পর আর কাজ হলো না। মনে হয়েছিল, আমার ক্যারিয়ার বুঝি শেষ। আমাকে ‘পুনরুজ্জীবন’ পেতে বলা হলো, জিরো সাইজড হলাম। সবার ক্যারিয়ারেই খারাপ সময় যায়। কিন্তু অভিনেতার জন্য এটা খুব বাজে, কারণ অনেক চোখ থাকে আপনার ওপর!

যা হোক, আমার জীবনে অনেক মানুষই পেয়েছি, যাঁরা আমাকে অবিরাম সাপোর্ট দিয়ে গেছে! তো যখন ভাবছি আমি বোধ হয় পড়ে যাচ্ছি, তখনই সাইফ আমাকে ধরে ফেলে। আগে কখনো দেখা হয়নি, কিন্তু ‘তাশান’ ছবির পর সব বদলে গেল। সে খুবই আকর্ষণীয়, আমি ওর প্রেমে পড়ে গেলাম।

মনে আছে, লাদাখ ও জয়সালমারে শুটিং চলাকালে আমরা দুজন একান্তে দীর্ঘক্ষণ বাইকে চড়েছি। সৌন্দর্য উপভোগ করেছি, দারুণ আলাপ হয়েছে এবং বন্ধন অনুভব করেছি!

ও আমার চেয়ে ১০ বছরের বড় এবং দুটো বাচ্চাও আছে। কিন্তু আমার কাছে, ও শুধুই সাইফ—বাঁচতে ও নিজেকে ভালোবাসতে শিখিয়েছে সে। হতে পারে আমরা দুজন একেবারেই আলাদা প্রকৃতির—ও খুবই অন্তর্মুখী, বলিউডি টাইপের না; কিন্তু আমি সেটা আত্মস্থ করে ফেলেছি। সবকিছুর ব্যালান্স করতে শিখেছি, নিজের ভেতরে সেসব না আনতেও শিখেছি।

যখন আমরা ডেটিং করতাম, ও আমাকে বলত, সে ২৫ বছরের ছেলে নয় যে প্রতিরাতে আমাকে বাড়িতে ড্রপ করে দিতে পারবে। সরাসরি আমার মাকে গিয়ে বলল, ‘বাকি জীবনটা ওর সঙ্গে কাটাতে চাই। আমরা লিভ টুগেদার করতে চাই।’ আমার মা শান্ত। ওর জন্য সহজ হলো ব্যাপারটা। এমনকি যখন বিয়ের সিদ্ধান্ত নিলাম আমরা, তখনো তাঁর কাছে ঠিকই ছিল।

কয়েক বছর পর পুত্রসন্তান তৈমুর আমাদের ধন্য করল। মাতৃত্ব অনেক বড় ব্যাপার, যা আমি পেয়েছি। তৈমুর আমারই অংশ—ওকে ছাড়া এক ঘণ্টাও থাকতে পারি না। যেখানেই যাই, আমার সঙ্গে ও থাকে। ওর জন্য দিন দিন আমার জন্য কাজ করা কঠিন হয়ে যাচ্ছে।

জীবনের এমন এক অধ্যায়ে আছি, ক্যারিয়ার ও পরিবারের মাঝামাঝি নির্বাচনের সুযোগ নেই। দুটোই করছি। আমি একজন অভিনেতা, আমার জীবনেও উত্থান-পতন আছে, আমি কারো বোন, কারো স্ত্রী, কারো মা এবং কোনো ভূমিকাই আমাকে নিরুৎসাহিত করেনি। বরং আমাকে সঠিক পথে চলতে সাহায্য করেছে। আমার স্বপ্নের পরিসর বেড়েছে, অনেক অর্জনের বাকি—অভিনেতা হিসেবে, নারী হিসেবে।”

কারিনা কাপুর এখন ‘গুড নিউজ’ সিনেমার শুটিং নিয়ে ব্যস্ত রয়েছেন। এতে তিনি অক্ষয় কুমারের সঙ্গে জুটি বেঁধেছেন। রাজ মেহতা পরিচালিত এ ছবিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকায় রয়েছেন দিলজিৎ দোসাঞ্জ ও কিয়ারা আদভানি। এ ছাড়া করণ জোহরের ‘তাখত’ সিনেমায় দেখা যাবে কারিনাকে। তারকাবহুল এ ছবিতে আরো রয়েছেন অনিল কাপুর, রণবীর সিং, আলিয়া ভাট, ভিকি কুশল, জাহ্নবী কাপুর ও ভূমি পেড়নেকার। সূত্র : বলিউড বাবল