নরেন্দ্র মোদীই প্রধানমন্ত্রী হচ্ছেন !

0
33

রাজ্যের ৪২ টি আসনেই ভোট গ্রহন শেষ৷ ইভিএম বন্দি প্রার্থীদের ভাগ্য৷ কিন্তু বিজেপি নেতা মুকুল রায়ের কথায় বাংলায় ভাল ফল করবে বিজেপি৷

উল্লেখ্য, বাংলায় এবার পাপড়ি মেলতে চলেছে পদ্ম৷ বিভিন্ন সর্বভারতীয় সংবাদ মাধ্যমের বুথ ফেরৎ সমীক্ষায় ইঙ্গিত এমনটাই৷ পশ্চিমবঙ্গে বিজেপি পেতে পারে ১৬ থেকে ২৩টি আসন৷

৪২-এ ৪২-এর ডাক দিয়েছিলেন তৃণমূল নেত্রী৷ কিন্তু বুথ ফেরৎ সমীক্ষার প্রবণতা সত্যি হলে সে গুড়ে বালি৷ ৪২ তো দূর, তিরিশের ঘরেও পৌঁছতে পারবে না জোড়াফুল শিবির৷

২০১৪-র তুলনায় প্রায় ৬ থেকে ১০টি আসন কমতে চলেছে তৃণমূল কংগ্রেসে র৷ আর এই সমীক্ষা প্রকাশ্যে আসতেই গোটা দেশজুড়ে কার্যত অকাল উৎসবে মেতেছেন বিজেপি কর্মীরা। বাংলার ক্ষেত্রেও ছবিটা একই রকমে।

সপ্তম দফায় ভোট শেষে বিজেপি নেতা মুকুল রায় সাংবাদিক সম্মেলন করেন৷ তিনি জানান, ভারতবর্ষে আবার নরেন্দ্র মোদীই প্রধানমন্ত্রী হচ্ছেন৷ পাশাপাশি বাংলায়ও ভাল ফল হবে৷

আসলে নিজেদের ভোটাধিকারের জন্য তৃণমূল বাহিনীর সঙ্গে বাংলার মানুষ লড়াই করেছে৷ এছাড়া তাঁর অভিযোগ, তৃণমূল কেন্দ্রীয় বাহিনীর উপর হামলা করেছে,বোমা ছুঁড়েছে। রাজ্যে শাসকদল অশান্তির বাতাবরণ তৈরি করছে বলে দাবি তাঁর।

কেন্দ্রে নতুন সরকারের কাছে তৃণমূলের রেজিস্ট্রেশন বাতিলের দাবি জানাবে রাজ্য বিজেপি। শেষ দফা ভোটের পর এই মন্তব্য করলেন বিজেপি নেতা মুকুল রায়৷

প্রাক্তন তৃণমূলের চাণক্য জানিয়েছেন, “গণতান্ত্রিকভাবে নির্বাচিত হয়েও যারা গণতন্ত্রে বিশ্বাস করে না। তাদের সাংবিধানিক স্বীকৃতি থাকা উচিত নয়।”

এদিনই তৃণমূলের বিরুদ্ধে সন্ত্রাসের অভিযোগ তুলে রাজ্য নির্বাচন কমিশনের দ্বারস্থ হয়েছিলেন বিজেপির আরেক এক নেতা জয়প্রকাশ মজুমদার৷ তিনিও কমিশনের কাছে তৃণমূলের রেজিস্ট্রেশন বাতিলের দাবি জানিয়েছেন৷