কাশ্মীরে মুসলিম নির্যাতন ও হত্যার প্রতিবাদে উত্তাল সিলেটের রাজপথ

0
67
সিলেট প্রতিনিধি : আজ বুধবার বিকাল ৪টায় কাশ্মীরে মুসলিম নির্যাতন ও হত্যার প্রতিবাদে এবং কাশ্মীরিদের স্বায়ত্তশাসন ফিরিয়ে দেয়ার দাবিতে সিলেটের রাজপথ বজ্র হুঙ্কার ও মিছিলে মিছিলে উত্তাল হয়ে উঠে জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশ সিলেট জেলা ও মহানগর শাখা বিক্ষোভ মিছিলে।
 
সিলেট নগরীর ধোপাদিঘীর পূর্বপাড়স্থ শিশু পার্কের সামনে থেকে মিছিলটি শুরু হয়ে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে চৌহাট্টা পয়েন্টে এক পথসভায় মিলিত হয়।
 
জমিয়তে উলামায়ে বাংলাদেশের সহ সভাপতি ও সিলেট জেলা সভাপতি আল্লামা শায়খ জিয়া উদ্দিন এর সভাপতিত্বে ও সিলেট জেলা জমিয়তের যুগ্ম সম্পাদক মাওলানা আব্দুল মালিক ক্বাসিমী ও মহানগর জমিয়তের সাংগঠনিক সম্পাদক হাফিজ সৈয়দ সালিম ক্বাসেমীর সঞ্চালনায় সমাবেশে বক্তব্য রাখেন জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় সহ সভাপতি সাবেক এমপি এডভোকেট মাওলানা শাহীনুর পাশা চৌধুরী, মহানগর সভাপতি মাওলানা খলিলুর রহমান, সিনিয়র সহ সভাপতি অধ্যক্ষ হাফিজ আব্দুর রহমান সিদ্দিকী, মাওলানা খয়রুল হোসেন, জেলার সাধারণ সম্পাদক মাওলানা আতাউর রহমান, মহানগর সাধারণ সম্পাদক হাফিজ ফখরুজ্জামান, জেলার সহ সভাপতি মাওলানা আসরারুল হক, আলহাজ্ব সামসুদ্দিন, মহানগর যুগ্ম সম্পাদক মাওলানা সিরাজুল ইসলাম, জাতীয় ইমাম সমিতি সিলেট মহানগর সভাপতি মাওলানা হাবিব আহমদ শিহাব, জেলার সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা নুর আহমদ ক্বাসেমী, মাওলানা শফিউল আলম, হাফিজ আব্দুস সালাম, মাওলানা সাইফুল ইসলাম, মাওলানা আব্দুল মতিন, মাওলানা খলিলুর রহমান, মাওলানা নাজিম উদ্দিন, হাফিজ আলী আহমদ, মাওলানা সালেহ আহমদ শাহবাগী, ক্বারী মুখতার আহমদ, মুফতি জাকারিয়া খান, মো. লুৎফুর রহমান, হাফিজ ফরহাদ আহমদ প্রমুখ।
 
মিছিলে সিলেটের বিভিন্ন উপজেলা থেকে ও নগরীর বিভিন্ন ওয়ার্ড থেকে কয়েক হাজার জমিয়ত নেতাকর্মী যোগদান করেন। মিছিলে স্লোগান ছিল- ‘কাশ্মীরে হামলা কেন, জাতিসংঘ জবাব দে’ ‘উগ্রবাদ নিপাত যাক, কাশ্মীর মুক্তি পাক’ ‘মানবতা তুমি কার, কাশ্মীরে কেন হাহাকার’ ‘দখলকার নিপাত যাক, কাশ্মীর মুক্তি পাক’ ‘গর্জে উঠো রণবীর, আজাদ করো কাশ্মীর’ ‘রক্ত ঢালবে লাখো বীর, স্বাধীন হবে কাশ্মীর’ ‘ভারতীয় রাজাকার, এই মুহুর্তে বাংলা ছাড়’ ‘অ্যাকশন অ্যাকশন, ডাইরেক্ট অ্যাকশন’।
 
মিছিল পরবর্তী পথসভায় সভাপতির বক্তব্যে জমিয়তে উলামায়ে বাংলাদেশের সহ সভাপতি ও সিলেট জেলা সভাপতি আল্লামা শায়খ জিয়া উদ্দিন বলেছেন, ‘নরেন্দ্র মোদি উগ্রবাদী ও কট্টর ইসলাম বিদ্বেষী। ভারতের মুসলমানদের উপর রাষ্ট্রীয় ভাবে সন্ত্রাস চালাচ্ছে সে। গো হত্যার মিথ্যা অভিযোগ তোলে বিভিন্ন সময়ে মুসলমানদের উপর যেই অত্যাচার, নির্যাতন চালিয়েছে, চালাচ্ছে তা নতুন করে বলার অপেক্ষা রাখে না।’
 
তিনি বলেন, ‘ভারতীয় সংবিধানের ৩৭০ অনুচ্ছেদ বিলুপ্তির মাধ্যমে কাশ্মীরের বিশেষ স্বতন্ত্র ও মর্যাদা কেড়ে নিয়েছে এই জালিম মোদি। ইন্টারনেট সংযোগ বন্ধ এবং সাংবাদিকদেরকে বের করে দিয়ে পুরো কাশ্মীরকে বিশ্ব থেকে আলাদা করে ইতিহাসের নিকৃষ্টতম বর্বরতা চালাচ্ছে এই জালেম মোদি সরকার। যখন তখন যাকে তাকে হত্যা, গ্রেফতার ও নির্যাতন করা হচ্ছে। এই মোদি সরকার বর্তমান সময়ের সবচেয়ে বড় দজ্জাল ও বড় সন্ত্রাসী।’
 
মাওলানা শায়খ জিয়া উদ্দিন বলেন, ‘আরবের ক্ষমতাসীন শাসকগোষ্ঠী তাদের ক্ষমতা টিকিয়ে রাখার জন্য আমেরিকা রাশিয়ার পা চাটা গোলামী করছে, মুসলিম বিদ্বেষী জালিম মোদিকে সম্মাননা দিয়ে ইতিহাসের নিকৃষ্টতম, ঘৃণ্য কাজ করেছে আরব আমিরাত।’ জাতিসংঘসহ বিশ্বের সকল মুসলিম দেশকে কাশ্মীর মুসলমানদের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান জানান তিনি।
 
তিনি বলেন, ‘বিশ্বের কোথায়ও কোন মুসলমান নির্যাতিত হলে আমরা ঘরে বসে থাকতে পারি না। এজন্যই আমরা রাজপথে নেমেছি, প্রয়োজনে কাশ্মীরে হত্যা নির্যাতন বন্ধ না হওয়া পর্যন্ত আমাদের আন্দোলন চলবে।’