জনগণের আশা-আকাঙ্ক্ষার ভরসা ও বিশ্বাস একমাত্র আওয়ামী লীগ !

0
116

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বিএনপি ক্ষমতায় থাকাবস্থায় দেশবাসীকে কী ধরনের দুঃশাসন ও অপশাসনের জাঁতাকলে পিষ্ট ছিল, তা জনগণ ভুলে যায়নি।’ বুধবার (১০ আগস্ট) বিএনপি নেতাদের ‘উস্কানিমূলক বক্তব্য ও মিথ্যা-অপপ্রচারের’ নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে দেওয়া এক বিবৃতিতে তিনি এই মন্তব্য করেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপি নেতৃবৃন্দ বলছে আওয়ামী লীগ সরকারের বিদায় নেওয়ার সময় এসেছে! গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় নির্বাচিত একটি সরকারের বিরুদ্ধে এ ধরনের বক্তব্য শুধু সংবিধান পরিপন্থীই নয়। গণতন্ত্রের নীতি বহির্ভূতও বটে। যা গণতন্ত্রের প্রতি হুমকিস্বরূপ।

‘আমরা দ্ব্যর্থহীন ভাষায় বলতে চাই, নির্বাচন ছাড়া ক্ষমতা পরিবর্তনের কোনও সুযোগ নেই। আওয়ামী লীগের ক্ষমতার উৎস হলো এদেশের জনগণ। ক্ষমতা দেওয়ার মালিক মহান আল্লাহ্। বিএনপির মতো জনবিচ্ছিন্ন রাজনৈতিক দলের মুখের কথায় জনগণ কখনও আস্থা রাখেনি। বিগত ১৪ বছর লাগাতার বিএনপি নেতারা এ ধরনের কথা এবং আন্দোলনের হাঁকডাক দিয়েই চলেছে।’

তিনি বলেন,  বিএনপির শাসন আমলে দেশ মগের মুল্লুকে পরিণত হয়েছিল, ধর্মীয় উগ্রবাদ, উগ্র-সাম্প্রদায়িকতা ও জঙ্গিবাদের ভয়াবহ বিস্তার ঘটেছিল। সার ও বিদ্যুতের দাবিতে আন্দোলন করায় কৃষককে গুলি করে হত্যা করা হয়েছিল। দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতায় জনগণের নাভিশ্বাস উঠেছিল। সংখ্যালঘু নির্যাতনের ভয়াবহ ও নিকৃষ্ট তম নজির স্থাপন করেছিল।

আবারও তারা দেশকে সে অরাজকতায় ডুবিয়ে দিতে চায়। কিন্তু জনগণ বর্ণচোরা বিএনপিকে চেনে। সুতরাং সে সুযোগ জনগণ আর তাদের দেবে না। গত চার দশক বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বেই বাঙালি জাতি সকল সঙ্কট ও চ্যালেঞ্জ জয় করতে সক্ষম হয়েছে।

তিনি আরো বলেন, এ দেশের যা কিছু মহৎ অর্জন এবং সঙ্কট জয়ের সাফল্য তা আওয়ামী লীগের নেতৃত্বেই অর্জিত হয়েছে। তাই বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনা ও আওয়ামী লীগকে কেন্দ্র করেই আবর্তিত হয় জনগণের আশা-আকাঙ্ক্ষা ভরসা ও বিশ্বাস।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here