আজব পোশাকে সিদ্ধহস্ত উরফি !

0
110

চমক দেওয়াটাই যেন একমাত্র কাজ সোশ্য়াল মিডিয়ার সেনসেশন উরফি জাভেদের। আর তাই তো আজব আজব পোশাকে ধরা দিতে একেবারে সিদ্ধহস্ত উরফি। কখনও শরীরে প্লাসটিক, কখনও শুধু মোবাইল ফোন আর চার্জার।

আর এবার স্তনের মধ্য়ে সোনালি জরির সাপ জড়িয়ে ক্য়ামেরার সামনে এলেন উরফি। সঙ্গে সবুজ রঙের ইভনিং গাউন। সম্প্রতি এক ফ্যাশন শোয়েও চমক দিয়েছেন উরফি। সোশ্যাল মিডিয়ার সেনসেশন তিনি। তাঁর আজব পোশাকে নেটিজেনদের তাক লাগান।

কখনও শুধুই সেফটিপিন, কখনও আবার শুধুই এক ফালি কাপড়। হ্যাঁ, কথা হচ্ছে উরফি জাভেদকে নিয়ে। নেটিজেনরা সুযোগ পেলেই উরফিকে নিয়ে ঠাট্টা করেন। তবে সদা খোশমেজাজে থাকা এই উরফির জীবন টা যে সহজ নয়, তা জানালেন নিজেই।

এক সাক্ষাৎকারে উরফি জানালেন, ”আমরা পাঁচ ভাই-বোন। বাবা আমাদের উপর খুবই অত্য়াচার করত। খুব মারধর করত। মাকেও মারধর করত বাবা। এসব দেখেই আমি বড় হয়েছি। বাবা বাড়িতে আটকে রাখত আমায়। অনেক বার আত্মহত্যা করার চেষ্টাও করেছি।

শুধু তাই নয়, উরফি আরও জানিয়েছেন ”খুবই অর্থাভাব ছিল আমাদের। বহু রাত গিয়েছে আমরা খেতে পায়নি। আমার বাড়ির লোক চাইত না যে আমি গ্ল্য়ামার জগতে আসি। কিন্তু ওই বাজে পরিস্থিতি থেকে বের হওয়ার কারণেই আমি এই দুনিয়াকে বেছে নিই। ছোটবেলার অন্ধকার ঢাকতে এখনকার ঝকঝকে দিকটাকে বেছে নিয়েছি।”

হিন্দি টেলিভিশনের অভিনেত্রী হিসেবে কেরিয়ার শুরু করেছিলেন উরফি। পরে ‘বিগ বস OTT’ শোয়ে প্রতিযোগী হিসেবে নজর কেড়েছিলেন। তবে সেসব এখন অতীত।

এখন উদ্ভট পোশাক পরে ক্যামেরার সামনে পোজ দেওয়াকেই নিজের পেশা বানিয়ে ফেলেছেন উরফি। সোশ্যাল মিডিয়ায় নানা ছবি ও ভিডিও আপলোড করেন তিনি। তা নিয়ে বিস্তর চর্চাও হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here