আদালতে ন্যায় বিচারের আশাবাদী নরওয়ে প্রবাসী হাবিবুল হক !

0
150

নিজস্ব প্রতিবেদক: হাবিবুল হক একজন প্রবাসী, সফল ব্যক্তিত্ব। কয়েক যুগ ধরে তিনি নরওয়ে থাকেন এবং নরওয়ের একজন নাগরিকও বটে। তার পিতার নাম আলহাজ্ব আব্দুর রহমান যাকে এলাকার মানুষ হক সাহেব হিসাবে চিনেন এবং জানেন। মানিকগঞ্জ জেলার সাটুরিয়া উপজেলা সদরে সাটুরিয়া বাজারে হক সাহেবের বসত বাটি। সারা বাংলাদেশের সিলভার শিল্পে (কড়াই) সাটুরিয়া উপজেলা যে, প্রস্দ্ধি লাভ করেছে তার পিছনে মূলতঃ হক সাহেবের অবদান অপরিহার্য।

হক সাহেব সাটুরিয়া বাজার ও তার আশে-পাশে অঢ়েল সম্পদ রেখে পরলোক হয়েছেন সেও কয়েক যুগ আগে। সেই থেকে হক সাহেবের পরিবার প্রবাসী। হাবিবুল হক, হক সাহেবের মেজু সন্তান। চার ভাইয়ের সকলেই তারা নরওয়ে প্রবাসী। তাদের হাত ধরে কম করে হলেও সারা বাংলাদেশ থেকে কয়েক শত মানুষ এখন (নরওয়ে) প্রবাসে থাকেন।

হাবিবুল হক ও তার ভাইয়েরা এলাকায় সৎ ব্যক্তি হিসাবে পরিচিত। তারা প্রবাস জীবনে উপার্জিত, সমস্ত অর্থ দিয়ে পিতার রেখে যাওয়া সহায়-সম্পদ আরো কয়েক গুণ বাড়িয়েছেন। অনুমেয় সাটুরিয়া বাজার ও তার  আশে-পাশে”হক পরিবারের”কয়েক হাজার কোটি টাকার সম্পদ রয়েছে।

দীর্ঘ দিন প্রবাসে থাকার কারণে এই বিশাল সম্পদকে কব্জায় নিতে গড়ে উঠেছে  এক অদৃশ্য সিন্ডিকেট। বিদেশ থেকে বিভিন্ন ঘটনা শুনা ও জানার পর সম্পদ দেখভালে হাবিবুল হক গত ২০২০ সালে বাংলাদেশে আসেন এবং সম্পদ রক্ষণাবেক্ষনের দায়িত্বে তৎপর হলে তার উপর নেমে আসে একের পর এক আক্রমন বিভিন্ন অবাঞ্চিত ঘটনা।

এমনই এক ঘটনা ঘটে ১৫/৭/২০২০ ইং সকালে। সেই দিন সকালে একটি সংঙ্ঘবদ্ধ চক্র অতর্কিত ভাবে হাবিবুল হক সাহেবে বাড়ীতে ঢোকার চেষ্টা করলে হাবিবুল হক তাদের বাধাঁ দেন। ফলে তার উপর নেমে আসে অমানুসিক অত্যাচার। এ সময় তাকে হত্যার উদ্দেশ্য লোহার রড দিয়ে বেদম মার-পিট করা হয়। এ হামলায় হাবিবুল হক আহত হলে এলাকাবাসী তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন।

এ ঘটনায় নরওয়ে প্রবাসী মোঃ হাবিবুল হক বাদী হয়ে বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে  সাটুরিয়া বাজারের মোঃ আব্দুল মান্নানের ছেলে মোঃ হাসিউল্লাল (৪২), মোঃ হামিদুল্লাল (৪০) ও মোঃ হুমায়ুন কবির (৩৭) কে আসামী করে ৩০৭/৩২৩/৩২৪/৫০৬/১৪৮/৪৪৭/৪৪৮/৩৭৯ পেনাল কোড ধারায় সি আর মামলা দায়ের করেন। মামলা নং ৩৭৪ (সাটুরিয়া) ২০২১ ইং(তারিখ ১/১১/২০২১ ইং)।

সাক্ষ্য-শুনানির পর বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত আসামীদের বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোনা জারি করেন। সেই সূত্র ধরে সাটুরিয়া থানা পুলিশ গত বৃহস্পতিবার তিন আসামীকে গ্রেফতার করে জেল হাজতে প্রেরন করেন।  গ্রেফতারকৃতরা হলো, সাটুরিয়া বাজারের আব্দুল মান্নানের ছেলে মোঃ হাসিউল্লাল (৪২), মোঃ হামিদুল্লাল (৪০) ও মোঃ হুমায়ুন কবির (৩৭)।

আজ সোমবার (২৮/০৩/২০২২) আবার মামলা আদালতে উঠলে ন্যায় বিচারের স্বার্থে আদালত আসামীদের জামিন না-মঞ্জুর করে জেল-হাজতে পাঠিয়ে দেন।  বাদীর পক্ষে মামলা পরিচালনা করেন সিনিয়র অ্যাডভোকেট মোঃ দেওয়ান মতিন।

এ বিষয়ে সাটুরিয়া বাজারের নরওয়ে প্রবাসী হাবিবুল হক বলেন, আমরা প্রবাসে থাকি। জীবনের সমস্ত আয় দিয়ে জন্মভূমি সাটুরিয়ায় বাড়ী-ঘর করছি। কিছু চিহিৃত সন্ত্রাসীরা আমার সম্পদ দখলে নিতে মরিয়া হয়ে উঠেছে। আমাকে প্রাণে মেরে ফেলার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

আমার সম্পদ ভোগ-দখলের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। আমি এই সকল সন্ত্রাসীদের হাত হতে বাচঁতে সকলের কাছে, বিশেষ করে আইন-শৃংখলা বাহিনীর সর্বাত্বক সহযোগিতা ও অপরাধিদের যথাযথ শাস্তি কামনা করছি।

এ ব্যাপারে সাটুরিয়া থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আশরাফুল আলম জানান,  আদালত গ্রেফতারী পরোয়ানা জারি পরপরই তিন আসামীকে গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। বাকী আসামীদের গ্রেফতারের অভিযান অব্যাহত রয়েছে। আদালতের ন্যায় বিচার আমাদের কাম্য।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here