আশার আলো দেখেনি সাটুরিয়ার বরাইদ ইউনিয়নবাসী !!

0
175
বরাইদ ইউনিয়নটি ধলেশ্বরী নদী ঘেষা সাটুরিয়া উপজেলার অধিনস্ত একটি চর- অঞ্চল বলা যেতে পারে। ইউনিয়নটির সর্বত্রই রয়েছে দারিদ্রতার ছাঁপ। তার মধ্যে বিগত কয়েক বছর ধরেই নদীর তীরবর্তী এই এলাকায় ড্রেজার বসিয়ে মাটি ব্যবসায়ীরা ইউনিয়নটির সৌন্দয্য লুন্ঠিত করেছে প্রায় শতভাগ।
গোপনে, কোন কোন ক্ষেত্রে প্রশাসনের অজ্ঞতার কারণে কিম্বা রাজনৈতিক দূরন্তপনায় এই সকল মাটি ব্যবসায়ীরা নদীর তীরবর্তী এলাকায় যত্রতত্র ড্রেজার বসিয়ে অবৈধ হুইলার দিয়ে মাটি কেঁটে নিচ্ছে- অদ্যাবদি।  যার ফলে ঐতিহ্যবাহী ধলেশ্বরী নদীটি যেমন তার সৌন্দয্য হারাতে বসেছে তেমনী আশে-পাশের গ্রাম গুলো হচ্ছে ছত্র-ছাড়া বিরান-ভূমি।  লক্ষ্যণীয় যে, বর্ষার মৌসুমে স্রোতের করাল গ্রাসে বিলিন হয়েছে-হচ্ছে নদীর তীরবর্তী দরিদ্র মানুষের বসতবাটি।
তথ্য নিয়ে জানা গেছে, কোন কোন ক্ষেত্রে অত্র ইউনিয়নের নিবার্চিত প্রতিনিধিরা চুপিসারে এই সকল ব্যবসায়ীদের সাথে সমঝোতা রেখে হাতিয়ে নিয়েছে লাভের সিংহভাগই। বিগত দশ বছরেও এই জন পথের কোন অবকাঠামোগত উন্নয়ন হয়নি। বিকাশ লাভ করতে পারেনি, চিকিৎসা, খাদ্য, বাস- স্থান ও চিকিৎসা সেবা।
মূলতঃ বিএনপি অধ্যাষিত এই জনপথে বরাবরই নির্বাচিত প্রতিনিধিরা কথা দিয়ে কথা রাখেনি , লুন্ঠিত হয়েছে সরকারী অনুদান, ভাতা, আর উন্নয়ন মূলক প্রকল্পের বরাদ্দকৃত অর্থ-কড়িও । ফলে এখানকার সাধারন জনগণ দিনকে দিন দরিদ্র থেকে দরিদ্রতর হয়েছে- হচ্ছে।
উল্লেখ্য যে, গত পাচঁ বছরে প্রায় শ‘খানেক পরিবার নদী ভাঙ্গনের শিকার হয়ে পথে বসেছে। অযোগ্য নেতৃত্বের কারণে গরিবেরা শোষিত হয়েছে, আর ধনিরা দিন দিন আরো ধনি হয়েছে। এক সময়ের তাঁতীদের জৌলসপূর্ণ গ্রাম  আগ-সাভার-এ, আজ তাতঁ শিল্পীরা সহায় সম্বল খুয়িয়ে  নিরবে কান্না করছে।
ইতিমধ্যে আসন্ন ইউপি নির্বাচনকে ঘিরে শুরু হয়েছে ‘নানান ধরনের প্রচার-প্রচারনা। বিভিন্ন প্রকার বঞ্চণার শিকার সাধারন জনগন এবার কাকে তাদের প্রতিনিধি হিসাবে বেচেঁ নেয় এটাই এখন দেখার বিষয়।

আঃ খঃ বাংলাটপনিউজ২৪.কম

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here