বসতভিটার মাটি তুলতে বাঁধা দেয়ায় গৃহবধূকে জখম !

0
51

শাহিনুর ইসলাম প্রান্ত, লালমনিরহাট প্রতিনিধি: লালমনিরহাটের আদিতমারী উপজেলায় বসতভিটার মাটি তুলতে বাঁধা দেয়ায় আর্জিনা বেগম(৩৫) নামে এক গৃহবধূকে রক্তাক্ত জখম করার অভিযোগ উঠেছে এক আনসার সদস্যের বিরুদ্ধে।

সোমবার(২ জানুয়ারি) সকালে ন্যায় বিচার চেয়ে আদিতমারী থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন ওই গৃহবধূ। আহত গৃহবধূ উপজেলার মহিষখোচা ইউনিয়নের বারঘড়িয়া গ্রামের নুর ইসলামের স্ত্রী।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, নিজ এলাকায় বাড়ি করার জন্য ১৫ শতাংশ জমি ক্রয় করেন গৃহবধূ আর্জিনা বেগম। সেই জমি থেকে রাতের আঁধারে মাটি কেটে নিয়ে যাচ্ছিল তার প্রতিবেশী আনসার সদস্য আব্দুল আউয়াল। বাড়ি করার এ জমিতে গর্ত না করতে তাকে একাধিক বার নিষেধ করেও কোন সুফল মেলেনি।

রোববার(১ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় আব্দুল আউয়াল পুনরায় ওই জমি থেকে মাটি কেটে নিচ্ছিল। এ সময় তাকে বাঁধা দিলে গৃহবধূ আর্জিনা বেগমকে দেশি অস্ত্র দিয়ে কোপ দেয় এবং পেটে লাথি মারে। এতে রক্তাক্ত জখম হন গৃহবধু আর্জিনা বেগম।

পরে স্থানীয়রা আহত গৃহবধু আর্জিনা বেগমকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে আদিতমারী উপজেলা স্বাস্থ্য কম-প্লেক্সে ভর্তি করে। এ ঘটনায় বিচার চেয়ে আনসার সদস্য আব্দুল আউয়ালসহ ৩জনের বিরুদ্ধে আদিতমারী থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন গৃহবধূ আর্জিনা বেগম।

ইতিপুর্বে দুইবার অবসন(এমআর) করায় শারীক ভাবে অসুস্থ্য আর্জিনা বেগম পুনরায় পেটে আঘাত পাওয়ায় প্রচন্ড রক্তক্ষণ হয়। রক্তক্ষনের সত্যতা নিশ্চিত করে হাসপাতালে দায়িত্বরত সেবিকা বলেন, ইতিপুর্বে এমআর করা রোগী পেটে আঘাত পাওয়ায় তার রক্তক্ষণ হচ্ছে। তবে চিকিৎসা চলছে।

আর্জিনা বেগম বলেন, টাকার অভাবে জমিটা উচু করতে পারি নি। উচু করে সেখানে বাড়ি করা হবে। সেই জমি থেকে গায়ের জোরে মাটি কেটে গর্ত দিচ্ছিল আনসার সদস্য আউয়াল। বাঁধা দেয়ায় হামলার শিকার হয়েছি।

আদিতমারী থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) মোক্তারুল ইসলাম বলেন, অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত করে দ্রুত আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here