চড় মেরে পদ হারালেন ইবির সহকারী প্রক্টর !

0
65
ইবি প্রতিনিধি:  ক্যাম্পাসের গাছ থেকে আম পাড়ায় এক শিক্ষার্থীকে চড় মারার দায়ে পদচ্যুত হলেন ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) সহকারী প্রক্টর আরিফুল ইসলাম। ভুক্তভোগী ওই শিক্ষার্থীর লিখিত অভি-যোগের প্রেক্ষিতে তাকে এ অব্যাহতি দেন উপাচার্য অধ্যাপক ড. শেখ আবদুস সালাম। মঙ্গলবার (২৭ এপ্রিল) বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার আতাউর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
খোঁজ নিয়ে জানা যায়, গত শুক্রবার (২৩ এপ্রিল) বিশ্ববিদ্যালয়ের হিসাববিজ্ঞান ও তথ্য পদ্ধতি বিভাগের ¯œাতকোত্তরের শিক্ষার্থী হাসান আলী তার স্ত্রীকে নিয়ে ক্যাম্পাসে ঘুরতে এসে গাছ থেকে কয়েকটি আম ছিড়েন। তা দেখতে পেয়ে গাছ থেকে নামিয়ে হাসানকে সজোরে থাপ্পর মারেন সহকারী প্রক্টর আরিফুল ইসলাম। পরে তাকে ও তার স্ত্রীকে বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব হলে আটক করে রাখেন তিনি।
আটকের প্রায় ঘন্টাখানেক পর প্রক্টরিয়াল বডির জিজ্ঞাসাবাদে তাদের ছেড়ে দেওয়া হয়। এ ঘটনায় ভুক্ত ভোগী হাসান আলি ওইদিন বিকেলে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর বরাবর লিখিত অভিযোগ দেন। অভিযোগ পত্রে সহকারী প্রক্টর আরিফ কর্তৃক শারীরিক ও মানসিকভাবে লাঞ্ছনার বিষয়টি তুলে ধরে তার সুষ্ঠু বিচারের দাবি জানায় হাসান। পরে বিষয়টি সমাধানে পরদিন শনিবার (২৪ এপ্রিল) প্রক্টরিয়াল বডির একটি সভা ডাকা হলে সেখানে হাসান কে চড় মারার বিষয়ে দুঃখ প্রকাশ করেন সহকারী প্রক্টর আরিফ।
তবে দু:খ প্রকাশের পরও ওই শিক্ষার্থী তার অভিযোগ প্রত্যাহার না করলে পরদিন তার অভিযোগ প্রতিবেদন আকারে উপাচার্য বরাবর জমা দেন প্রক্টরি-য়াল বডি। পরে আজ মঙ্গলবার অভিযুক্ত ওই সহকারী প্রক্টরকে তার পদ থেকে অব্যাহতি দেন উপাচার্য। এদিকে শিক্ষক কর্তৃক শিক্ষার্থীকে চড় মারার বিষয়টি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পরলে ওইদিনই প্রতিবাদের ঝড় তোলে সাধারণ শিক্ষার্থীরা।
সেইসাথে ওই ঘটনায় শনিবার ক্যাম্পাসে দিনব্যাপী আমপাড়া কর্মসূচী নামে অভিনব প্রতিবাদ জানান তারা। অব্যাহতির বিষয়ে রেজিস্ট্রার আতাউর রহমান সময়ের আলোকে বলেন, ‘ ভুক্ত ভোগী শিক্ষার্থীর লিখিত অভিযোগ ও প্রতিবেদনের প্রেক্ষিতে উপাচার্য স্যার তাকে সহকারী প্রক্টরের দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দিয়েছেন।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here